JanaBD.ComLoginSign Up

খাবার চিবানোর শব্দ সহ্য করতে না পারাটা রোগের লক্ষণ!

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস 27th Jun 2016 at 9:21am 233
খাবার চিবানোর শব্দ সহ্য করতে না পারাটা রোগের লক্ষণ!

এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই যে, কিছু কিছু শব্দ সব বিরক্তির সীমাকেও ছাড়িয়ে যায়। এটা হতে পারে একটি চকবোর্ডের ওপর পেরেক মারার শব্দ, একটি ধাতু প্লেটের ওপর একটি ধাতব কাঁটাচামচ দিয়ে পেটানোর শব্দ, কোনো বৈদ্যুতিক ড্রিল মেশিনের তীব্র শব্দ বা এমনকি মেঝেতে জুতার খসখস শব্দ।

নিঃসন্দেহে শব্দ করে খাবার চিবানো এবং গবগব করে খাওয়াকেও এই তালিকায় রাখতে হবে কিন্তু যদি আপনার এই বিষয়টির ওপর অত্যাধিক নেতিবাচক আবেগ বা শারীরিক প্রতিক্রিয়া থেকে থাকে তবে ‘বোরডম থেরাপি’ এর মতে আপনি সম্ভবত ‘মিসোফোনিয়া’ নামক একটি মনঃস্তাত্বিক রোগে ভুগছেন।

‘মিসোফোনিয়া’ এর আক্ষরিক অর্থ ‘শব্দের প্রতি ঘৃণা’। এই ধরনের সমস্যায় যখন মানুষ ভোগে তখন কিন্তু সে, সব শব্দে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখায় না বরং তাদের নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখানোর নির্দিষ্ট ট্রিগার আছে এবং সংখ্যাগরিষ্ঠ ট্রিগারগুলো মুখের সঙ্গে সম্পর্কিত। গুছিয়ে বলতে গেলে গবগব করে খাওয়ার এবং গ্রাস করার শব্দই তাদের নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখানোর সেই নির্দিষ্ট ট্রিগার।

বিশেষভাবে উল্লেখ্য যে ‘মিসোফোনিয়া’ রোগীদের কাছে অস্বস্তির কারণ হলো, যে কোনো উচ্চ মাত্রার শব্দ যা কিনা তাদের কাছে যে কোনো সাধারণ যন্ত্রণার চাইতে অনেক বেশি পীড়াদায়ক।

যে কোনো ট্রিগার এক্সপোজার যেমন গোলমাল, শব্দ করে খাবার চিবানো এবং গবগব করে খাওয়াকে তাদের মধ্যে উদ্বেগ তৈরি করে, তাদের কাছে তখন এটি শাস্তিযোগ্য মনে হয় এবং তখন তারা নেতিবাচক এবং চরম প্রতিক্রিয়া দেখায়।

তাই আপনি যদি এই অবস্থার স্বীকার হোন, শুধু এটা জেনে রাখবেন যে, এটি একটি প্রাকৃতিক অবস্থা এবং আপনি অবশ্যই একা এই অবস্থায় নেই।

এমনকি যদি আপনি এই রোগে ভোগে নাও থাকেন, এক্ষেত্রে এটা প্রত্যাশা করা যায় যে পরবর্তী সময় আপনি মানুষের সঙ্গে ডাইনিংয়ে খেতে বসলে কেউ আপনার চিবানোর সঙ্গে উত্তেজিত না হোক, এ ব্যাপারে সতর্ক থাকবেন।

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 36 - Rating 9.2 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)