JanaBD.ComLoginSign Up

ভারতে না ফিরে আফ্রিকায় জাকির নায়েক

আন্তর্জাতিক 12th Jul 2016 at 10:08am 618
ভারতে না ফিরে আফ্রিকায় জাকির নায়েক

জঙ্গিদের প্রভাবিত করার অভিযোগ ওঠায় জাকির নায়েককে নিয়ে যখন ভারত ও বাংলাদেশে তুমুল বিতর্ক, তখন তিনি সৌদি আরবে। সোমবারই তার মুম্বাইয়ে ফেরার কথা ছিল। কিন্তু ভারতে না ফিরে তিনি সৌদি আরব থেকে পাড়ি দিচ্ছেন আফ্রিকায়।

জাকির নায়েক অবশ্য জানিয়েছেন, আগে থেকেই কর্মসূচি ঠিক করে রাখা আছে আফ্রিকার কয়েকটি দেশে। তবে ভারতীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের চিন্তা, আফ্রিকায় কাজ সেরে আদৌ ভারতে ফিরবেন তো বিতর্কিত এই ধর্ম প্রচারক?

ইসলাম প্রচারের নামে জাকির নায়েক তরুণদের মগজধোলাই করছেন, আইএসে যোগ দিতে উৎসাহ জোগাচ্ছেন— এমন অভিযোগ ওঠার পর রোববার বাংলাদেশে তার চ্যানেল ‘পিস টিভি’-র সম্প্রচার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ইন্টারনেটেও যাতে তা দেখা না যায় সেই ব্যবস্থাও করা হয়েছে। তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে সোমবার ভারতেও বন্ধ হয়েছে এর সম্প্রচার। এ ব্যাপারে সমস্ত রাজ্যকে চিঠি দিয়েছেন কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বেঙ্কায়া নাইডু।

দেশে ফিরলে তদন্ত শুরু হবে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে। তাকে গ্রেফতার করার ভাবনাচিন্তাও শুরু হয়েছে। গোয়েন্দাদের সন্দেহ, সেই আঁচ পেয়েই সম্ভবত জাকির দেশে ফেরা এড়িয়ে গেলেন। যদিও সৌদি আরব থেকে জাকির সোমবার দাবি করেছেন, ‘ভারত সরকারের পক্ষ থেকে এখনও আমার সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করা হয়নি। তদন্তের স্বার্থে আমি গোয়েন্দাদের সব রকম সাহায্য করতে প্রস্তুত। তবে বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমার বক্তব্যকে বিকৃতভাবে ব্যবহার করা হয়েছে। পরিস্থিতি যা, তাতে এখন সংবাদমাধ্যমই আমার বিচার চালাচ্ছে।’

জাকির শেষ টুইট করেছেন শনিবার। তাতে তিনি লিখেছেন, ‘সংবাদমাধ্যম আমার বিচার চালাচ্ছে। আমাকে সমর্থন করুন, পাশে থাকুন।’

জাকির নায়েক মুখে আইএসের ভাবধারার বিরোধিতা করলেও, হায়দরাবাদ ও মুম্বাইয়ের পরে কেরালা থেকে সিরিয়ায় গিয়ে আইএসে যোগ দেওয়া যুবকদের সঙ্গেও তার সংস্রব খুঁজে পেয়েছেন গোয়েন্দারা। সম্প্রতি কেরালা থেকে প্রায় ২০ জন যুবক আইএসে যোগ দিয়েছে বলে জানা গেছে। ইশা ও ইয়াহিয়া দুই ভাই তাদের মধ্যে অন্যতম। তাদের দু’জনের জঙ্গি হওয়ার পিছনে জাকির নায়েকের হাত রয়েছে বলে অভিযোগ এনেছে তাদের পরিবার।

ইশাদের বাবা ভিনসেন্ট দাবি করেছেন, তার ছেলেদের সঙ্গে জাকির নায়েকের সরাসরি যোগ ছিল। জাকিরের সংস্পর্শে এসেই তারা খ্রিস্টধর্ম ছেড়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে। আইএসে যোগ দিতে সিরিয়া যাওয়ার আগে সস্ত্রীক তারা জাকিরের সঙ্গে দেখাও করেছিল। জাকিরের সঙ্গে আলাপ করাতে মুম্বাই নিয়ে গিয়েছিল শ্যালকদেরও , যদিও তাঁরা ধর্ম বদলাতে রাজি হননি।

জাকিরের সংস্থা ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের কাজকর্মও এখন সন্দেহের ঘেরাটোপে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ওই সংস্থার একাধিক কর্মীর সঙ্গে সন্ত্রাসের যোগ মিলেছে বা অভিযোগ উঠেছে। তাদের এক জন ফিরোজ দেশমুখ, ঔরঙ্গাবাদ অস্ত্র মামলায় জড়িত। বর্তমানে সে জামিনে মুক্ত। ওই একই মামলায় অভিযুক্ত ফিরোজের সহকর্মী রাহিল দেশ ছেড়ে বাংলাদেশে পালিয়ে যায়। তাদের আর এক সহকর্মী আয়াজ সুলতান আফগানিস্তান হয়ে সিরিয়া পালিয়ে যায়। পরে সে আইএসে যোগ দিয়েছে বলেও জানতে পেরেছেন গোয়েন্দারা।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 4 - Rating 5 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)