JanaBD.ComLoginSign Up

12 Angry Men: চিন্তা বদলে দেওয়া মুভি

মুভি রিভিউ 23rd Jul 16 at 9:19am 680
12 Angry Men: চিন্তা বদলে দেওয়া মুভি

12 Angry Men

Year: 1957

Genre: Court-room Dramma

Story & Screenplay by: Reginald Rose
Directed by: Sidney Lumet

Cast:
12 Juror- Martin Balsam, John Fiedler , Lee J. Cobb, E. G. Marshall, Jack Klugman, Edward Binns, Jack Warden, Henry Fonda, Joseph Sweeney, Ed Begley, George Voskovec, Robert Webber
Uncredited- John Savoca as the accused, Rudy Bond as the judge, James Kelly as the guard, Billy Nelson as the court clerk

প্রেজেন্টেশন বা উপস্থাপনা একটা বড় জিনিস যেকোনো ক্ষেত্রেই। আর একটা পার্ফেক্ট মুভি মানেই একটা পার্ফেক্ট উপস্থাপন।
একটা ঘটনা একটা গল্পকে সঠিকভাবে উপস্থাপন করাটাই আসল। আর সেই কাজটা করে তোলে অভিনেতারা আর ক্যামেরার পিছন থেকে প্রেজেন্টেশন বারবার ঘষেমেজে ঠিক করেন পরিচালক।

12 Angry Men মুভিটার সাথে এই কথাগুলো খুবই প্রয়োজনীয়। কারণ মুভিটার মূল ভিত্তিটাই হচ্ছে উপস্থাপন। কাহিনির উপস্থাপন এবং চরিত্র সমূহের উপস্থাপন।
খুবই সাধারণ একটা কাহিনী…আসলে খুবই সাধারণ না, এই মুভিতে যেভাবে বারবার কাহিনী চেঞ্জ হয়েছে অল্প একটু অবস্থার মধ্য দিয়ে, সত্যিই একটা অন্যরকম থ্রিলার মুভিও বলা চলে। যাই হোক, কাহিনী মূলত সাধারণই। আর সেটাকে অসাধারণ করে তুলেছেন পরিচালক সিডনি লুমেট। এটি ছিল এই প্রখ্যাত চলচ্চিত্রকারের প্রথম পরিচালনা, আর সেটাতেই সম্ভবত তিনি নিজের সেরা এবং দুনিয়ার অন্যতম সেরা পরিচালনা করে গিয়েছিলেন। এই পরিচালকই আমাদের পরবর্তীতে উপহার দিয়েছেন Serpico, Network, Dog Day Afternoon এর মতো কিছু সেরা ছবি।

মুভির কাহিনী একটা খুনের মামলাকে ঘিরে। যে মামলার ১২ জন জুরি একটি রুমে বসে সিদ্ধান্ত নেবেন, আসামির ভাগ্যে কি আছে। যদি সবাই-ই প্রথমে “Guilty” বলে দেন আসামীকে, তাহলে আসামির ভাগ্যে আছে মৃত্যুদন্ড। কিন্তু এরই মাঝে অষ্টম জুরি “Not Guilty” বলে দেন। কারণ তার মনে হচ্ছে এতো কম বয়সী ছেলে মৃত্যুদন্ড নয়য়, বরং আরেকটা সুযোগপ্রার্থী। এবং মামলার বিভিন্ন তথ্য নিয়েও তার সন্দেহ আছে। এই একটা সন্দেহ নিয়ে বাকি কাহিনী যেভাবে আগালো আর বারবার কাহিনী চেঞ্জ হলো সেটা সত্যি অত্যন্ত অসাধারণ। কোনো গ্রাফিক্স বা কোনো সেট নয়য়, মাত্র একটা রুমের মাঝে এই কাহিনীটি চলতে থাকে। কিন্তু আমি দেখছিলাম প্রচন্ড অবাক হয়ে এই মুভির কাহিনীর উপস্থাপনাটা।

১২ জন জুরির স্বভাব-চরিত্রের মাঝে সাধারণ কিছুই ছিল না। সবাই অত্যন্ত আলাদা এক-এক ধরোনের চরিত্র। আর এই বারো জন মানুষের চরিত্র রূপায়ন আমার মতে সবচেয়ে সেরা ক্যারেক্টার ডেভেলোপিং ছিল। হেনরি ফন্ডা একজন কিংবদন্তী অভিনেতা। অষ্টম জুরি হিসেবে তার ডায়লগ ডেলিভারি, এক্সপ্রেশন, হাসি সেটা ভোলার মতো না। আলাদা করে বলতে হয় ছড়ি বের করার অংশের কথা, যেখানে তিনি একা চুপচাপ থেকে বাকি ১১ জনকে চমকে দিয়েছিলেন।

লি জে. কব এর তিন নাম্বার জুরিকে এই মুভির এন্টাগনিস্ট বলা চলে। পুরোপুরি এন্টাগনিস্ট না অবশ্যই। আমার কাছে চরিত্রটা ছিল একটু রহস্যময়। কারণ মামলার সাথে যেন নিজেকে ব্যক্তিগতভাবে জড়িয়ে নিচ্ছিল সে। বারবার নতুন তথ্যের পরও সে তার ভুল যুক্তিতে অটল ছিল।

বাকি সব চরিত্রও ছিল নজরকাড়া। কারণ আগেই বললাম, প্রতিটা চরিত্রই ছিল একদম আলাদা একে অপরের চেয়ে। তাই তাদের ক্যারেক্টার ডেভেলোপিটাও ছিল অন্যরকম।




১২ জন জুরি



মুভিটা ছিল ডায়লগ প্রধান। কেননা, একটি মাত্র রুমে পুরো কাহিনী আবর্তিত হয়। তাই মুভির প্রাণ ছিল মুভির ডায়লগ। কাহিনির এগিয়ে ছিল, হালকা কমেডি সবই ডায়লগের মাধ্যমে বয়ে চলেছিল। আর একেকটা চরিত্রের নিজ অনুযায়ী যুক্তি উপস্থাপন অনুযায়ী এক্সপ্রেশন ছিল সেই ডায়লগগুলোর অলংকার। আর ডায়লগগুলো ছিল মুভির।

মুভির সবচেয়ে যে জিনিসটা ভালো লাগে, একটামাত্র রুমে পুরো কাহিনী। কিন্তু এর জন্য কোনো বিরক্তি নেই। বরং ১২ জনকে দেখতে দেখতে আর কাহিনীর বেড়ে যাওয়া দেখতে দেখতে মনে হচ্ছিল, “মুভিটা কি তাড়াতাড়িই শেষ হলো? আরেকটুতো দেখাতে পারতো এই জাদুকরী ব্যাপারটা।”

এই মুভিটা কোর্টরুম ড্রামা, কিন্তু কমেডি, থ্রিলার সবই ছিল এই এক মুভিতে অনেকবার হেসেছি, অনেক কমেডি মুভির চেয়েও। আর থ্রিলের কথা বলবোই না। সেটা আপনাদের উপভোগের বিষয়।

মুভির আরেকটা চোখে পড়ার মতো ব্যাপার ছিল,কারো নাম ব্যবহৃত হয় নি। মাত্র দুইজনের নাম আমরা পেয়েছিলাম, সেটাও শেষে গিয়ে।

এই মুভি নিয়ে বলতে গেলে অনেক কিছু বলা যায়। এই মুভিটা আসলে একটা পার্সপেক্টিভ চেঞ্জিং মুভি, যেভাবে এই মুভির মাঝেই পার্সপেক্টিভ চেঞ্জ হয়েছিল চরিত্রগুলোর। দর্শকরা এই একটি মুভির মাধ্যমে হয়তো বুঝতে পারবে, আসলে কিভাবে ভালো মুভিগুলো তৈরি হয়, আর নতুন পরিচালকদের জন্যতো অবশ্যই শিক্ষণীয়।

আমার দেখা অন্যতম সেরা এই মুভিটি রোটেন টমাট্যোস এ শতভাগ ফ্রেশ রেটিং পেয়েছে। IMDb এর টপ লিস্টের ৬ নাম্বারে আছে এখন পর্যন্ত।

My Rating: 10/10; Top #10
IMDb Rating: 8.9/10; #6
Rotten Tomatoes: 100%

Accolades:
Academy Award: Best Director, Best Picture, and Best Writing of Adapted Screenplay
7th Berlin International Film Festival: Golden Bear (Best Picture) Award
Several positions in AFI Complimentary List.

Remake: ১৯৯৭ সালে Direct-to-DVD তে এটির রিমেক মুক্তি পায়।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 20 - Rating 6 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি
তিনকালের সংগ্রাম নিয়ে ‘ভুবন মাঝি’ তিনকালের সংগ্রাম নিয়ে ‘ভুবন মাঝি’
Mar 18 at 2:54pm 439
বিদেশী মুভি রিভিউ : বদ্রিনাথ কি দুলহানিয়া বিদেশী মুভি রিভিউ : বদ্রিনাথ কি দুলহানিয়া
Mar 13 at 4:57pm 695
M.S. Dhoni: The Untold Story (২০১৬) – ইচ্ছাশক্তির দৃষ্টান্ত M.S. Dhoni: The Untold Story (২০১৬) – ইচ্ছাশক্তির দৃষ্টান্ত
13th Oct 16 at 3:30pm 1,187
‘The Legend of Tarzan’ (2016) ইতিহাস ও কল্পনার সংমিশ্রনে তৈরী এক নতুন কিংবদন্তী, যা দেখেনি কেউ আগে… !!! ‘The Legend of Tarzan’ (2016) ইতিহাস ও কল্পনার সংমিশ্রনে তৈরী এক নতুন কিংবদন্তী, যা দেখেনি কেউ আগে… !!!
29th Sep 16 at 8:41am 1,076
W-The Two Worlds (2016) – ভিন্নধর্মী রোমাঞ্চ কাহিনী-চিত্রায়ন নিয়ে সময়ের সাড়া জাগানো কোরিয়ান ফ্যান্টাসি ড্রামা সিরিজ W-The Two Worlds (2016) – ভিন্নধর্মী রোমাঞ্চ কাহিনী-চিত্রায়ন নিয়ে সময়ের সাড়া জাগানো কোরিয়ান ফ্যান্টাসি ড্রামা সিরিজ
24th Sep 16 at 10:59am 679
নীল বাট্টে সান্নাটা(২০১৬) দেখায় স্বপ্ন ছোট হতে নেই নীল বাট্টে সান্নাটা(২০১৬) দেখায় স্বপ্ন ছোট হতে নেই
24th Sep 16 at 10:57am 559
Pink(2016): অভূতপূর্ব চমকপ্রদ অভিনয়ে নিজেকে ছাড়িয়ে গেল অমিতাভ বচ্চন Pink(2016): অভূতপূর্ব চমকপ্রদ অভিনয়ে নিজেকে ছাড়িয়ে গেল অমিতাভ বচ্চন
24th Sep 16 at 10:56am 834
No Smoking (বলিউডের অন্যতম সেরা সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার মুভি ) No Smoking (বলিউডের অন্যতম সেরা সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার মুভি )
18th Sep 16 at 8:55am 772

পাঠকের মন্তব্য (0)

Recent Posts আরও দেখুন

নেইমারের সমান বেতন না দিলে ম্যান সিটি ছাড়বেন ব্রুইন!
নগ্নতাকে পুঁজি করে আলোচনায় এসেছেন যেসব নায়িকারা
শালীনতার মাত্রা ছাড়ালেন আরশি খান!
স্পেশাল রেসিপি : ডিমের মালাইকারি
আলু খাবেন যে কারণে
২০০ ছক্কার ক্লাবে ডি ভিলিয়ার্স
ওয়াকার ইউনুসের রেকর্ড ভাঙলেন হাসান আলী
হারের কারণ জানালেন মাশরাফি