JanaBD.ComLoginSign Up

তনয় আর লিপির একটি মিষ্টি ভালবাসার গল্প

ভালোবাসার গল্প 30th Jul 16 at 12:44am 1,429
তনয় আর লিপির একটি মিষ্টি ভালবাসার গল্প

"ঠাস". . . তনয়ের গালে কষে একটা চড় মেরে দিল লিপি ।

কারণ তনয় তাকে প্রোপোজ করসে।
- লিপি, তোর পায়ে পড়ি প্লীজ, আরেকটা চড় মার ।

লিপি ভাবল, একটা থাপ্পড় খেয়ে বান্দরটার শিহ্মা হয়নি । তাই আরেকটা মেরে দিল । ঠাস করে
- থ্যাঙ্কু দোস্ত । একটা মারলে আমার বিয়ে হতনা । তাই আরেকটা মারতে বললাম । দুটা মারলে বিয়ে হয় । আর বিয়েটা কিন্তু তোর সাথেই হবে ।
- তুই এত ফাজিল ক্যান? আমি তোকে ভালবাসি না। আর বিয়েতো দূরের কথা
- তোকে বাসতে হবে না । আমি বেসে যাব । I love u..
. . . . তনয় আর লিপির পরিচয় হয় কলেজ থেকে ।

এখন তারা একই ভার্সিটিতে পড়ে । দুজনের বন্ধুত্বে যেমন আছে খুনসুটি ঝগড়া তেমনি আছে হাসি কান্ক্যা ফেটেরিয়া, আড্ডায় সব জায়গায় একসাথে দেখা যেত । অনেকে তাদের কাপল ভাবলেও ভুল হবে না। যাই হোক, আজ তনয় তাকে প্রপোস
করেছে..
কিন্তু মেয়েটা না করে দিসে ।
কেন না করল তনয় এটা বুঝতে পারেনা ।
***
রাতে ফেসবুকে লগিন করল লিপি। তনয়ের স্ট্যাটাস দেখতে পেল ।
তনয় লিখসে---
"ফ্রেন্ডজ, খুব শীঘ্রই আমার বিয়ে হবে । আজ একটা মেয়ের কাছে দুইটা থাপ্পড় খেয়েছি । ফিলিং লুঙ্গি ড্যান্স" লিপি হাসে । আচ্ছা পাগল! সে স্ট্যাটাসের কমেন্ট পড়তে শুরু করে ।

কমেন্ট গুলা এরকম :
1. দোস্ত পার্টি দে ।
2. আমার ভাগ্যে কবে এরকম মেয়ে জুটবে?
3. দোস্ত একটা পেইনকিলার খেয়ে নিস । থাপ্পড়ের ব্যথা বড়ই জালা দেয় । আমিও এককালে খাইসিলাম তো. . . .
4. থাপ্পড় মারল কিডা ? তনয় রিপ্লাই দেয়, "যে মারসে সে এই স্ট্যাসটা দেখবে এবং ফিচকি ফিচকি হা "

লিপি স্ট্যাটাস আর কমেন্টগুলা পড়ে আসলেই হাসছিল। সে একটা কমেন্ট দিতে গিয়ে কি মনে করে দিল না ।
হুট করে ল্যাপটপ অফ করে দিল । ***

তনয় এখন টিউশনিতে । সে বারবার ফেসবুকে ঢুকে চেক করছে লিপি লাইক কমেন্ট কিছু দিসে কিনা! কিন্তু নাহ দেয় নি । লিপিতো এরকম করার কথা না ।
- ভাইয়া দেখেন তো । এই ক্যালকুলাসটা পারছি না ।
- আচ্ছা দাও বুঝিয়ে দি ।
- আপনি কি চিন্তিত?
- কই নাতো ।
- আপনার গাল লাল মনে হচ্ছে! ব্যাপার কি?
- ও কিছুনা আপু । বান্ধবী চড় মারসে ।
- হায় হায়! কেন?
- প্রপোজ করসি তাই । ঠাস করে মেরে দিসে ।
- হিহি । ব্যাপার না । প্রথম প্রথম ইগনোর করে ।
- হুম সেটাই তো দেখছি । কি করি বলোতো?
- কিছুদিন অন্য মেয়ের সাথে ঘুরেন । আপুর চোখে যাতে পড়ে । আপু তখন জলবে আর বিষ দৃষ্টিতে তাকাবে ।
- ওয়াও বেশ ভাল আইডিয়া । তো তুমি আমার সাথে ঘুর কিছুদিন!
- আমি?? না না । আমি পারবনা।
- আরে কিছু হবে না । চল একদিন । - বেশ । কলেজ ফাঁকি দিয়ে আপনাদের ক্যাম্পাসে ঘুরে আসব।

- লিপি, বিকেলে সময় দিতে পারবি?
- কোথায় যাবি?
- মার্কেটে । - তুই যা । আমার টাইম নাই ।
- দেখ লিপি তুই আগে কখনোই অজুহাত দিতি না । আমার সাথে ইদানিং এরকম করিস ক্যান?
- ধুর ছাই ! আগে যেরকম ছিলাম এখনও সেরকম আছি । এখন যায় । কাজ আছে ।
***
তনয় আর নিধিকে কিছুদিন ধরে ক্যাম্পাসে ঘুরতে দেখা যাচ্ছে । নিধি ওর ছাত্রী । তনয়ের কাছের বন্ধুরা ব্যাপারটা জানে । লিপি হাসানের কাছে গিয়ে বলে, "দ্যাখ হাসান, তনয় কি একটা ল্যাছড়া মেয়ের সাথে ঘুরছে! সহ্য হয়?"
হাসান বলে, "ল্যাছড়া হবে কেন? অনেক স্মার্ট । বেশ মানাচ্ছে দুজনকে!"
লিপি ভাবে, "আসলেই তো মেয়েটা ল্যাছড়া না! তাইলে কি তনয় ওর সাথে. . . " না না লিপি কি ভাবছে এসব!! ***

তনয় আর নিধি ক্যাফেটেরিয়াতে চা সমুচা খাচ্ছে দুজন মিলে বেশ আড্ডা দিচ্ছে । লিপি আড়চোখে ব্যাপারগুলা খেয়াল করে ।

- ঐ তনয়, বিকেলে তোর সময় হবে? নিধি বলে, "আপু বসেন । কফির অর্ডার দি ।"
- ধুর ছাই! রাখো তোমার কফি! তনয় তোর সময় হবে ?
- কই যাবি ?
- মার্কেটে ।
- তুই যা । আমার টাইম নাই ।
- দেখ তনয়, তুই আগে কখনোই অজুহাত দিতি না। আমার সাথে ইদানিং এরকম করিস ক্যান?
- ধুর ছাই ! আগে যেরকম ছিলাম এখনও সেরকম আছি ।
এখন যাতো এখান থেকে!
- আচ্ছা গেলাম । লিপি রাগ করে চলে যায় । নিধি বলে, "দেখসেন ভাইয়া , আপু জলছে ।"
- হেহে । বেশ জলছে ।
***
রাতে তনয় রিলেশনশীপ স্ট্যাটাস চেন্জ করে দেয়। ITS COMPLICATED.. লিপি এটা দেখে কেদে দেয় । তনয়কে কল দেয় সে ।
- হ্যা লিপি বল ।
- ঐ মেয়েটা কে? তুই ওকে ভালবাসিস?
- জানিনা । শুন আমার বিয়ের বাজার কিন্তু তোকেই করতে হবে । তোর চয়েস ভাল । লিপি এবার আরো জোরে কেদে দেয়।
- কিরে কাদিস ক্যান? বিয়ের বাজার করতে বলসি। আগুনে ঝাপ দিতে তো বলি নাই।
- তনয়, তোকে ভালবাসি ।
- হুম জানি । তো সেদিন বলিস নাই ক্যান!? - আরে ঐটা এমনি মজা করেসিলাম । জানতাম নাকি তুই আরেক মেয়ের পাল্লায় পড়বি?
- হেহে । আমি আবার কম কিসে? নিধি আমার ছাত্রী। এতদিন অভিনয় করসি ।
- কি? তুই এত বদমাস ক্যান? সামনে থাকলে থাপরাই গাল লাল করে দিতাম তোর।
- চুপ থাক । বিয়ের বাজার কিন্তু তোকেই করতে হবে
- আবার শুরু করলি?
- আরে বাবা আমাদের বিয়ের বাজার! আমার আম্মা তোকে বেশ পছন্দ করে ।
.
*** আজ ওদের ইয়ের রাত । ইয়ের রাত মানে বাসর রাত আর কি! তনয় স্ট্যাটাস দেয়,
"FRNDZ আজ আমাদের ইয়ের রাত । ইয়ের রাত মানে ইয়ের রাত আর কি! দুয়াপ্রার্থী ।"

বন্ধুরা কমেন্ট দেয়, "দুয়া করি ইয়ের রাতে বউ যেন তোরে থাপ্পড় না মারে ।"
লিপি হাসির ইমো দিয়ে কমেন্ট করে, "নাহ আজ থাপ্পড় দিব না । আজ ওকে এতগুলা পাপ্পি দিব"
এই কমেন্টে অনেক অনেক লাইক পড়ে । তনয় হাসে । লিপিও হাসে । ঐদিকে বন্ধুরাও হাসে এই খুনসুটি ভালবাসা দেখে ।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 17 - Rating 6.5 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি
জীবন দিয়ে ভালবাসার প্রমাণ জীবন দিয়ে ভালবাসার প্রমাণ
16 Jan 2018 at 7:42pm 335
ভালোবাসার অসমাপ্ত গল্প ভালোবাসার অসমাপ্ত গল্প
4th Dec 17 at 10:27pm 1,446
প্রেম ও আমি... প্রেম ও আমি...
10th Sep 17 at 11:12pm 3,502
ভালোবাসার পুনর্বাসন ভালোবাসার পুনর্বাসন
29th Aug 17 at 9:26pm 1,756
ভালোবাসার মানুষ হয়ে ওঠার গল্প ভালোবাসার মানুষ হয়ে ওঠার গল্প
25th Aug 17 at 10:20pm 2,428
শেষ চিঠি শেষ চিঠি
19th Aug 17 at 9:56pm 2,237
স্বপ্নকে ছুঁয়ে দেখার অপেক্ষা স্বপ্নকে ছুঁয়ে দেখার অপেক্ষা
18th Aug 17 at 10:29pm 1,768
নাগরদোলা! নাগরদোলা!
16th Apr 17 at 10:00pm 2,352

পাঠকের মন্তব্য (0)

Recent Posts আরও দেখুন
মুক্তির আগেই লোকসানে ‘পদ্মাবত’মুক্তির আগেই লোকসানে ‘পদ্মাবত’
ছেলেদের যে অভ্যাসগুলো মেয়েদের বেশি আকৃষ্ট করেছেলেদের যে অভ্যাসগুলো মেয়েদের বেশি আকৃষ্ট করে
শীতে কাশি হলে করণীয়শীতে কাশি হলে করণীয়
ছেলেদের চুলের যত্নে হেয়ার প্যাকছেলেদের চুলের যত্নে হেয়ার প্যাক
আজকের আবহাওয়া : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৮আজকের আবহাওয়া : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৮
হারের পর সাংবাদিকদের মেজাজ দেখালেন কোহলিহারের পর সাংবাদিকদের মেজাজ দেখালেন কোহলি
১২০০ নারীকে বিছানায় নিয়েছেন, অতঃপর...১২০০ নারীকে বিছানায় নিয়েছেন, অতঃপর...
যখন তখন ঘুমিয়ে পড়ছেন, বড় কোনও অসুখ নয়তো!যখন তখন ঘুমিয়ে পড়ছেন, বড় কোনও অসুখ নয়তো!