JanaBD.ComLoginSign Up

এই দেশে শিশু-ধর্ষণের শাস্তি ধর্ষককে পুরুষত্বহীন করে দেওয়া

আন্তর্জাতিক 11th Aug 2016 at 10:27am 377
এই দেশে শিশু-ধর্ষণের শাস্তি ধর্ষককে পুরুষত্বহীন করে দেওয়া

ধর্ষণের উপযুক্ত শাস্তি ঠিক কী হওয়া উচিৎ? বিশেষত, ধর্ষিত মানুষটি যখন একজন নাবালিকা কিংবা নাবালক? একদল মানুষ এই প্রশ্নের উত্তরে বহুদিন থেকেই বলে আসছেন, ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে প্রাণদণ্ডও যথেষ্ট নয়। বরং পুরুষাঙ্গ-ছেদনের মতো শাস্তিই ধর্ষকের প্রাপ্য। এবার ইন্দোনেশিয়া কতকটা সেই পথেই হাঁটল।

দ‌িন কয়েক আগে ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রপতি জোকো উইডোডো ঘোষণা করেছেন, এবার থেকে কোনও ব্যক্তির বিরুদ্ধে কোনও নাবালক বা নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হলে শাস্তি হিসেবে তাকে রাসায়ণিকের মাধ্যমে পুরুষত্বহীন করে দেওয়া হবে।

২০১৫ সালে সুমাত্রায় একটি ১৪ বছর বয়সি মেয়ে বাড়ি ফেরার পথে ৭ জন কিশোরের হাতে গণধর্ষিত হয়। শাস্তি হিসেবে অভিযুক্তদের ১০ বছরের কারাবাস দেয় আদালত। তাতেই দেশজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। দেশের মানুষ এই অভিমত ব্যক্ত করেন যে, এহেন বর্বরোচিত অপরাধের শাস্তি কখনওই কারাবাস হতে পারে না। এমনকী মৃত্যুদণ্ডও এক্ষেত্রে উপযুক্ত শাস্তি নয়। বরং উচিৎ অপরাধীদের পুরুষত্বহীন করে দেওয়া, যাতে আর কোনওদিন তারা এই ধরনের কোনও কাজ করার কথা ভাবতেও না পারে।

দেশজোড়া এই দাবির পরিপ্রেক্ষিতেই নতুন সিদ্ধান্ত নিল ইন্দোনেশিয়ার সরকার। এবার থেকে রাসায়ণিক খোজাকরণ করা হবে নাবালক-নাবালিকা ধর্ষণের অপরাধীদের। এই পদ্ধতিতে বিশেষ রাসায়ণিকের প্রয়োগের মাধ্যমে একজন অপরাধীর পুরুষত্ব হরণ করা হবে। এমনকী ধর্ষণে অভিযুক্ত কোনও ব্যক্তি যদি প্যারোলেও মুক্তি পায়, তাহলে বিশেষ প্রযুক্তির মাধ্যমে তার গতিবিধির উপর নজর রাখবে প্রশাসন।

রাষ্ট্রপতি উইডোডো বলেছেন, ‘‘যেহেতু নাবালিকা ধর্ষণের ঘটনা আমাদের শান্তি, নিরাপত্তা আর শৃঙ্খলাকে ব্যাপকভাবে বিঘ্নিত করে, সেহেতু সেই অপরাধের শাস্তিও নজিরবিহীন হওয়া উচিৎ।’’ সরকারের এই সিদ্ধান্তকে ব্যাপকভাবে স্বাগত জানিয়েছেন, ইন্দোনেশিয়ার সাধারণ মানুষ।

ক্ষেত্র বিশেষে ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে পুরুষত্ব হরণ করার বিষয়টি চালু রয়েছে অস্ট্রেলিয়া, রাশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া এবং আমেরিকাতেও। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হল ইন্দোনেশিয়াও। ভারতেও এই ধরনের শাস্তি চালু করার দাবি উঠছে দীর্ঘদিন থেকে। ২০১৩-তে দিল্লিতে নির্ভয়া কাণ্ড ঘটার পর এই দাবি জোরদার হয়। ভারত সরকার কি পারবে, ইন্দোনেশিয়ার দৃষ্টান্ত অনুসরণ করে ধর্ষকদের প্রতি অনমনীয় মনোভাব প্রদর্শন করতে? সেটাই এখন দেখার।

তথ্যসূত্রঃ এবেলা

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 2 - Rating 5 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)