JanaBD.ComLoginSign Up

বাড়িতে নেই টয়লেট, বিয়ের শখ হেলিকপ্টারে!

সাধারন অন্যরকম খবর 17th Sep 2016 at 10:01am 558
বাড়িতে নেই টয়লেট, বিয়ের শখ হেলিকপ্টারে!

ভারতে এখনও বহু বাড়িতে নিজস্ব শৌচাগার যে নেই, সেটা এখন নতুন খবর নয়।

কিন্তু শৌচাগার না বানিয়ে যখন কেউ হেলিকপ্টার ভাড়া করার মতো শখ করতে পারেন, তখনই সেটা খবর হয়।

মধ্যপ্রদেশের সিহোর জেলার এক বিত্তবানের শখ হয়েছিল ছেলে হেলিকপ্টারে চেপে বিয়ে করতে যাবে বরযাত্রী নিয়ে। তারপর বউ নিয়ে ফিরবেও হেলিকপ্টারে। যদিও পাত্রী থাকেন পাশের গ্রামেই!

আজমতনগর গ্রামের বাসিন্দা সূরজ সিং গুর্জর তার ছেলে নেম সিংয়ের বিয়ের জন্য ভাড়া করতে চেয়েছিলেন হেলিকপ্টার। নিয়মমতো প্রশাসনের কাছে আবেদনও করেছিলেন তিনি।

আর এ ধরনের অনুমতি দেয়ার আগে প্রশাসনিক কর্তারা খতিয়ে দেখতে গিয়েছিলেন সূরজ সিং গুর্জরের বাড়ি।

তখনই প্রশাসনের কর্মকর্তার জানতে পারেন, সূরজ গুর্জরের বাড়িতে শৌচাগার নেই। অথচ শখ হয়েছে হেলিকপ্টার ভাড়া করে ছেলে বিয়ে দেয়ার৷ নায়েব তহশিলদার কুলদীপ দুবে তার মুখের ওপরেই জানিয়ে দেন, 'আগে বাড়িতে শৌচাগার তৈরি করুন, তারপর হেলিকপ্টারের জন্য আবেদন করবেন। শৌচাগার না হলে হেলিকপ্টারের অনুমতি দেব না।'

সূরজ গুর্জর যখন হেলিকপ্টার ভাড়া করতে চেয়েছেন, তখন যে তার আর্থিক অবস্থা খুবই ভাল, সে কথা বলার অপেক্ষা রাখে না।

যদিও ভালো করে খোঁজ নিতে গিয়ে দেখা গেছে, সূরজ সিংয়ের পরিবারের নাম বিলো পভার্টি লাইন বা গরিবী রেখার নিচে থাকা মানুষদের তালিকাতেও আছে। অর্থাৎ তারা রেশন থেকে শুরু করে নানা সরকারি সুবিধা পেয়ে থাকেন, আর ভরতুকিও পান।

একদিকে তো হেলিকপ্টারে চাপিয়ে বরবেশে ছেলেকে পাঠানোর পরিকল্পনা বাতিল হতে বসেছে। অন্যদিকে বিপিএল তালিকায় কী করে একজন ধনী ব্যক্তির নাম থাকে, তা নিয়ে শুরু হয়েছে প্রশাসনিক তদন্ত।

তবে সিহোরের জেলা শাসক সুদাম খাড়ে জানালেন, চাপে পড়ে ওই ব্যক্তি রাতারাতি শৌচাগার বানিয়ে নিয়েছেন। তারপরে নতুন করে আবেদন করেছিলেন তিনি, আমরা অনুমতি দিয়েও দিয়েছি।

তিনি আরও জানান, তবে বিপিএল তালিকায় কীভাবে ওই ধনী পরিবারের নাম এলো, তা নিয়ে এখনও তদন্ত চলছে।

ভারতে ২০১৯ সালের মধ্যে সব বাড়িতে শৌচাগার তৈরির পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। এজন্য একেবারে নীচুতলার প্রশাসনিক কর্মকর্তার ভোরবেলা বেরিয়ে গ্রামের মাঠেঘাটে ঘুরছেন। কাউকে মাঠে শৌচকর্ম করতে দেখলেই নানা ধরনের ব্যবস্থা নিচ্ছেন।

কখনও হাতে গোলাপ ফুল ধরিয়ে দেয়া হচ্ছে, কোথাও হাতে কোদাল দিয়ে মাটি চাপা দিতে বলা হচ্ছে, কোথাও ছবিসহ নামের তালিকা গ্রামের টাঙিয়ে দিয়ে অপমান করার ভয় দেখানো হচ্ছে।

তাতে অনেকে বাড়িতে শৌচাগার বানাচ্ছেন ঠিকই, তবুও মাঠে গিয়ে প্রাতঃকৃত্য সারার অভ্যাস এখনও অনেকেই ছাড়তে পারছেন না।

তবে সব ধরনের হুমকির সেরা এটাই, যে বিয়ের জন্য হেলিকপ্টার ভাড়া দেয়ার অনুমতি দেয়া হবে না যতক্ষণ না বাড়িতে শৌচাগার তৈরি হচ্ছে!

সূত্র- বিবিসি বাংলা

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 4 - Rating 5 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)