JanaBD.ComLoginSign Up

শীতের রাতে - গোপাল ভাঁড়ের গল্প

হাসির গল্প 29th Oct 16 at 3:50pm 3,444
শীতের রাতে - গোপাল ভাঁড়ের গল্প

রাজা বললেন, শীতের রাতে কেউ কি সারা রাত এই পুকুরে গলাজলে ডুবে থাকতে পারবে? যদি কেউ পারে, আমি তাকে অনেক টাকাপয়সা, ধনরত্ন পুরস্কার দেব।

এক ছিল গরিব দুঃখী মানুষ। সে বলল, আমি পারব।

সে মাঘ মাসের তীব্র শীতে সারা রাত পুকুরের জলে গলা ডুবিয়ে দাঁড়িয়ে রইল। ভোরের বেলা সে উঠল জল থেকে।

রাজার কাছে গিয়ে সে বলল, আমি সারা রাত পুকুরের জলে ছিলাম। আপনার সান্ত্রী-সেপাই সাক্ষী। এবার আমার পুরস্কার দিন।

রাজা বললেন, সেকি, তুমি কেমন করে এটা পারলে!

গরিব লোকটা বলল, আমি জলে সারা রাত দাঁড়িয়ে রইলাম। দূরে, অনেক দূরে এক গৃহস্থ বাড়িতে আলো জ্বলছে। আমি সেই দিকে তাকিয়ে রইলাম। সারা রাত কেটে গেল।

মন্ত্রী বলল, পাওয়া গেছে। এই যে দূরের প্রদীপের আলোর দিকে ও তাকিয়ে ছিল, ওই প্রদীপ থেকে তাপ এসে তার গায়ে লেগেছে। তাই তার পক্ষে সম্ভব হয়েছে এই শীতেও ওই পুকুরে গলা পর্যন্ত ডুবিয়ে রেখে দাঁড়িয়ে থাকা।

রাজা বললেন, তাই তো! তাহলে তো তুমি আর পুরস্কার পাও না। যাও। বিদায় হও।

গরিব লোকটা কাঁদতে কাঁদতে বিদায় নিল। সে গেল গোপাল ভাঁড়ের কাছে। অনুযোগ জানাল তাঁর কাছে। সব শুনলেন গোপাল ভাঁড়।

তার পর গোপাল ভাঁড় বললেন, ঠিক আছে, তুমি ন্যায়বিচার পাবে।

গোপাল ভাঁড় নিমন্ত্রণ করলেন রাজাকে, দুপুরে খাওয়াবেন। রাজা এলেন গোপাল ভাঁড়ের বাড়ি। গোপাল ভাঁড় বললেন :

আসুন আসুন। আর সামান্যই আছে রান্নার বাকি। কী রাঁধছি দেখবেন, চলুন।

গোপাল ভাঁড় রাজাকে নিয়ে গেলেন বাড়ির পেছনে। সেখানে একটা তালগাছের ওপর একটা হাঁড়ি বাঁধা আর নিচে একটা আগুন জ্বালানো।

গোপাল ভাঁড় বললেন, ওই যে হাঁড়ি, ওটাতে জল, চাল, ডাল, নুন সব দেওয়া আছে। এই তো খিচুড়ি হয়ে এলো বলে। শিগগিরই আপনাদের গরম গরম খিচুড়ি খাওয়াচ্ছি।

রাজা বললেন, তোমার বাড়িতে নিমন্ত্রণ খাব বলে সকাল থেকে তেমন কিছু খাইনি। খিদেয় পেট চোঁ চোঁ করছে। এখন এই রসিকতা ভালো লাগে!

রসিকতা কেন, রান্না হয়ে এলো বলে।

রাজা বললেন, তোমার ওই খিচুড়ি জীবনেও হবে না, আমার আর খাওয়াও হবে না। চলো মন্ত্রী, ফিরে যাই।

গোপাল বললেন, মহারাজ, কেন খিচুড়ি হবে না। দূরে গৃহস্থবাড়িতে জ্বালানো প্রদীপের আলো যদি পুকুরের জলে ডুবে থাকা গরিব প্রজার গায়ে তাপ দিতে পারে, এই প্রদীপ তো হাঁড়ির অনেক কাছে। নিশ্চয়ই খিচুড়ি হবে।

রাজা তার ভুল বুঝতে পারলেন। বললেন, আচ্ছা পাঠিয়ে দিও তোমার ওই গরিব প্রজাকে। ওর প্রতি আসলেই অন্যায় করা হয়েছে। ওকে দুগুণ পুরস্কার দেব।

সে তো আপনি দেবেনই। আমি জানতাম। আসুন, ঘরে আসুন। দুপুরের খাওয়া প্রস্তুত।

তার পর রাজা সত্যি সত্যি গরিব লোকটাকে অনেক পুরস্কার দিয়েছিলেন।

(সংগৃহীত)

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 71 - Rating 5.1 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি
'আমি একটা আহাম্মক' এই সত্য যেভাবে আমাকে মানিয়া লইতে হইল! 'আমি একটা আহাম্মক' এই সত্য যেভাবে আমাকে মানিয়া লইতে হইল!
8th Dec 17 at 2:10am 1,605
সেদিনেরটা ছিল আজকের জন্য - নাসিরউদ্দিন হোজ্জার গল্প সেদিনেরটা ছিল আজকের জন্য - নাসিরউদ্দিন হোজ্জার গল্প
30th Aug 17 at 9:25am 2,384
আজ যে ভীম একাদশী  - গোপাল ভাঁড়ের গল্প আজ যে ভীম একাদশী - গোপাল ভাঁড়ের গল্প
17th Mar 17 at 12:03am 2,521
ভূতের উপদ্রব - গোপাল ভাঁড়ের গল্প ভূতের উপদ্রব - গোপাল ভাঁড়ের গল্প
19th Jan 17 at 11:30pm 3,924
দায়িত্বহীনতার পরিচয় - গোপাল ভাঁড়ের গল্প দায়িত্বহীনতার পরিচয় - গোপাল ভাঁড়ের গল্প
19th Jan 17 at 11:21pm 2,411
জাত কুল সব গেল - গোপাল ভাঁড়ের গল্প জাত কুল সব গেল - গোপাল ভাঁড়ের গল্প
22nd Dec 16 at 10:44pm 2,102
বুদ্ধির ঢেঁকি - গোপাল ভাঁড়ের গল্প বুদ্ধির ঢেঁকি - গোপাল ভাঁড়ের গল্প
19th Dec 16 at 11:07pm 2,461
জামা-কাপড় দিয়ে কী হবে? জামা-কাপড় দিয়ে কী হবে?
3rd Dec 16 at 4:19pm 3,124

পাঠকের মন্তব্য (0)

Recent Posts আরও দেখুন
‘বাঘি থ্রি’ নিয়ে আসছে টাইগার‘বাঘি থ্রি’ নিয়ে আসছে টাইগার
মজার যত ধাঁধা - ১৩তম পর্বমজার যত ধাঁধা - ১৩তম পর্ব
মাইলফলকের সামনে দাঁড়িয়ে মুশফিকমাইলফলকের সামনে দাঁড়িয়ে মুশফিক
এটা তোর এটা আমারএটা তোর এটা আমার
৬০ হাজার টাকা বেতনে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকে চাকরি৬০ হাজার টাকা বেতনে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকে চাকরি
অফিসে প্রেমের ক্ষেত্রে যেসব কথা বলবেন নাঅফিসে প্রেমের ক্ষেত্রে যেসব কথা বলবেন না
নেইমার-কাভানির গোলে পিএসজির বড় জয়নেইমার-কাভানির গোলে পিএসজির বড় জয়
৬ হাজারের মাইলফলকের সামনে রিয়াল৬ হাজারের মাইলফলকের সামনে রিয়াল