JanaBD.ComLoginSign Up

যেসব লক্ষণে বুঝবেন শারীরিক ব্যায়াম প্রয়োজন

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস 21st Nov 2016 at 8:05am 243
যেসব লক্ষণে বুঝবেন শারীরিক ব্যায়াম প্রয়োজন

আমরা অনেকেই মনে করি, শুধু ওজন কমানোর জন্য শারীরিক ব্যায়াম করা দরকার। কিন্তু তা নয়। নিজেকে সুস্থ রাখার জন্য শারীরিক ব্যায়াম করার প্রয়োজন রয়েছে। আমাদের শরীরে অনেক সমস্যা শারীরিক ব্যায়াম না করার জন্য হয়ে থাকে।

দিনের শুরুতে অল্প কিছুক্ষণের শারীরিক ব্যায়াম আপনার সারা দিনকে করে তুলতে পারে অনেক সুন্দর। নিজের ওজনের মাত্রা ঠিক রাখার সঙ্গে সঙ্গে শারীরিক ব্যায়াম আপনাকে দিতে পারে অতিরিক্ত সতেজতা এবং ফুরফুরে দিন।

কিছু লক্ষণ আছে যেগুলো দেখে আপনার বোঝা উচিত যে, আপনার সত্যি শারীরিক ব্যায়ামের দরকার। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেই লক্ষণগুলো সম্পর্কে।

ঘন ঘন আউশি ওঠা
খুব ঘুম পেলে বা ক্লান্ত হয়ে পড়লে আমরা হাই তুলি বা আউশি দেই। অনেক সময় দেখা যায় পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমানোর পর আপনার আউশি উঠছে বা শরীরে ক্লান্তি ছাড়াই আপনি হাই তুলছেন। তখন বুঝতে হবে আপনার শরীরের একটি নড়াচড়া করা দরকার। অর্থাৎ আপনার শারীরিক ব্যায়াম দরকার। ইউনিভার্সিটি অব জর্জিয়া একটি গবেষণার মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন যে, যারা সকালে অন্তত ২০ মিনিট ব্যায়াম করেন এবং এক সপ্তাহ এক টানা করেছেন তাদের কাজের গতি অন্যদের তুলনায় বেশি।

হঠাৎ ব্যথা অনুভূত হওয়া
কোনো কাজ করার সময় হঠাৎ করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে ব্যথা অনুভূত হয়। এর মূল কারণ হল, শরীরের নড়াচড়া করার পরিমাণ কম। আমরা যারা সারাদিন বসে বসে কাজ করি তাদের ক্ষেত্রে এই ব্যথা বেশি অনুভূত হয়। তাই সকালে উঠে অন্তত ২০ মিনিট থেকে আধা ঘণ্টা শারীরিক ব্যায়াম করুন। সার্টিফায়েড পার্সোনাল ট্রেইনার কারাস বলেন, শারীরিক ব্যায়ামের মাধ্যমে শরীরে রক্ত চলাচলের পরিমাণ বেড়ে যায়। এতে করে শরীরে শক্তির উৎপাদন ঘটে। যা ভারি কাজ করার সময়ের শারীরিক ব্যথা থেকে মুক্তি দেয়।

অতিরিক্ত চাপ
অতিরিক্ত শারীরিক বা মানসিক চাপ ভালো নয়। কারাস বলেন, চাপের মাত্রা কখনও বেশি হতে দেওয়া যাবে না। মেলন ইউনিভার্সিটির একটি গবেষণায় বলা হয়, মেয়েদের সর্বাধিক চাপের পরিমাণ ১৮ শতাংশ এবং ছেলেদের ২৪ শতাংশ। তবে যারা সারাদিন বাইরে ঘুরে ঘুরে কাজ করেন তাদের শারীরিক বা মানসিক চাপের মাত্রা আরো বেশি। চাপের মাত্রার সমতা বজায় রাখার জন্য প্রতিদিন সকালে শারীরিক ব্যায়ামের সঙ্গে সঙ্গে মেডিটেশন করাটাও ভালো হবে।

হজম প্রক্রিয়াতে সমস্যা
বেশিরভাগ ডাক্তাররা বলেন যে, খাওয়ার পর খুব ধীরে ধীরে অল্প কিছুক্ষণ যেমন মিনিট পাঁচেক হাটা উচিত। এতে খাবার হজম হতে সমস্যা হয় না। কিন্তু আমরা বেশিরভাগ মানুষ আলসেমির জন্য তা করি না, আবার অনেকে এ তথ্য সম্পর্কে জানি না। যারা সারাদিন বসে কাজ করেন তাদের জন্য এটি বেশি দরকারি। একটু শারীরিক ব্যায়াম না করলে খাবার হজম হতে বেশ সমস্যা দেখা দেবে।

অপর্যাপ্ত ঘুম
শারীরিক ব্যায়ামের অভাবে আপনার খাবার ঠিকমত হজম হয় না। কাজের প্রতি অনীহা দেখা দেয়। ফলে শারীরিক অস্বস্তি তৈরি হয়। আর এই সবগুলোর কারণে ঘুমের অসুবিধা হতে শুরু করে। অপর্যাপ্ত ঘুম হওয়া, থেকে থেকে ঘুম ভেঙে যাওয়া- এ সবই শারীরিক ব্যায়ামের অভাবে হয়ে থাকে। তাই নিজেকে সুস্থ রাখার জন্য শারীরিক ব্যায়ামের দরকার।

পরিপূরক খাদ্য
পর্যাপ্ত ঘুম ও খাবার গ্রহণের পরেও শরীরে যদি ক্লান্তি থাকে তাহলে বুঝবেন তা শারীরিক ব্যায়ামের অভাবে হচ্ছে। এক্ষেত্রে শরীরের ক্লান্তি রোধ করতে আমরা বেশি বেশি খাবার বা পানীয়, বা সিগারেট গ্রহণ করি যা আমাদের শরীরের জন্য খুবই খারাপ। এতে করে ওজন বাড়ার সম্ভাবনা থাকে আর সিগারেটের খারাপ দিক সম্পর্কে তো আমরা সবাই জানি। -রাইজিংবিডি

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 2 - Rating 5 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)