JanaBD.ComLoginSign Up

শীতে শিশু ও বয়স্কদের সুরক্ষায় কয়েকটি পরামর্শ

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস 4th Dec 2016 at 2:47pm 202
শীতে শিশু ও বয়স্কদের সুরক্ষায় কয়েকটি পরামর্শ

অন্যান্য ঋতুর চেয়ে শীত ঋতু একটু ভিন্নরকম। এই ঋতুর জন্য শিশু, নবজাতক ও বয়স্কদের জন্য বেশি সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। ঠান্ডার দিনে বাচ্চারা বেশি কাপড় নষ্ট করে। ধুতে কষ্ট হলেও শুকাতে সমস্যা হয়ে পড়ে। নবজাতক বাচ্চাদের জন্য অন্য ঋতুর চেয়ে এই ঋতুতে বেশি জামা প্যান্ট ও কাঁথার প্রয়োজন হয়ে পড়ে। শীত মৌসুমে জ্বর, ঠান্ডা, কাশি, হাঁচি, নিউমনিয়া ইত্যাদি ধরনের রোগগুলো বেশি দেখা দেয়। তবে শীতে ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় কারণে শিশু ও বৃদ্ধরা বেশি স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়েন। এই ঝুঁকি থেকে মুক্তির জন্য কয়েকটি পরামর্শ....

*হাইপোথার্মিয়া
হাইপোথার্মিয়ার রোগ থেকে রক্ষা পেতে শিশুটিকে একটি গরম কক্ষে রাখুন। পানিশুন্যতা এড়াতে একটি হিউমিডিফায়ারযুক্ত রুম হিটার ব্যবহার করুন। হিউমিডিফায়ার বাতাসের আর্দ্রতা ধরে রাখে।

*নিউমোনিয়া এবং বক্ষের সংক্রমণ
নিউমোনিয়া এবং বক্ষের সংক্রমণ থেকে দূরে রাখতে শিশুটির মাথা, হাত এবং পা যথাযথভাবে ঢেকে রাখুন।

*শ্বাসকষ্ট, শ্বাসনালীর প্রদাহ
সকালবেলা হাঁটাহাঁটি করা যাবে না। ভারী পোশাক-আশাক পরুন। মাথা, হাত ও পা ঢেকে রাখুন। উচ্চ প্রোটিনযুক্ত খাবার খান।

* বক্ষের সংক্রমণ
সময়মতো ওষুধ খান। ইনফ্লুয়েঞ্জার টিকাও কাজে লাগতে পারে। ভাইরাস জনিত সংক্রমণ থেকে মুক্ত থাকুন।

* হার্ট অ্যাটাক/স্ট্রোক
বয়স্কদের বেলায় অস্বাভাবিক কোনো কাশি বা শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে সাথে সাথে ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করুন।

শীতের দিনে সকাল সকাল শিশুদের গোসল করিয়ে দিবেন। আপনার একটু সচেতনতায় শিশু বা বয়স্করা রক্ষা পেতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনার হাত থেকে। ছোটদের পাশাপাশি বৃদ্ধরাও শীতের প্রকোপ থেকে রক্ষা পান না। অনেক বয়স্করা আছেন যারা ঠিকমত হাত পায়ের যত্ন নেন না। নিয়মিত গোসল করেন না। পানি কম খাওয়ার জন্য প্রস্রাবের মধ্যে ইনফেকশন হওয়ার সম্ভবনা থাকে। নিয়মিত গোসল ও যত্নের অভাবে স্কিন ডিডিজের মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই এই ধরনের সমস্যার হাত থেকে রক্ষা পেতে নিয়মিত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকবেন। নিয়মিত গোসল করতে না চাইলে কুসুম গরম পানি দিয়ে গোসল করবেন। তাতে নানা রোগের হাত থেকেও রক্ষা পাওয়া যাবে। শীতে রঙ্গীন তাজা শাক সবজির প্রচুর সমারহ হয়ে থাকে। তাই এই সময় প্রচুর শাক সবজি, ফলমূল, পানি ও পানি জাতীয় খাবার খাবেন। লাল ও সবুজ রঙের শাকে ভিটামিন এ, ভিটামিন সি এবং লোহা পাওয়ার জন্য নির্ভরশীল খাদ্য। বাচ্চা ও বৃদ্ধরা কখন ভাল খায় আবার কখন তেমন কিছু খেতে চায় না। তাই তাদের রুচির কথা ভেবে খাবারের খাদ্যমান ঠিক রেখে ভিন্ন জাতীয় খাবার তৈরি করবেন।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 6 - Rating 6.7 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)