JanaBD.ComLoginSign Up
জানা হবে অনেক কিছু, চালু হয়েছে জানাবিডি (JanaBD) এন্ডয়েড এপস । বিস্তারিত জানুন..
Internet.Org দিয়ে ব্রাউজ করুন আমাদের সাইট ফ্রী , "জানাবিডি ডট কম"

শৈলকুপায় দুই যাত্রাশিল্পীকে গণধর্ষণ, ৫০ হাজারে মিমাংসা

দেশের খবর 2nd Jan 2017 at 9:13pm 620
শৈলকুপায় দুই যাত্রাশিল্পীকে গণধর্ষণ, ৫০ হাজারে মিমাংসা

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় থার্টি ফাস্ট নাইটে দুই যাত্রাশিল্পী গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। শিল্পীরা রাতেই যাত্রা বন্ধ করে চলে যাওয়ার প্রস্তুতি নিলেও আয়োজকদের চাপে শেষ পর্যন্ত তারা থাকতে বাধ্য হন। ভোর রাতে শৈলকুপা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান শিকদার মোশারফ হোসেন সোনার মধ্যস্থতায় ৫০ হাজার টাকায় বিষয়টি মিমাংসা করতে বাধ্য হন মাগুরা থেকে আসা যাত্রা দলটি।

সংশ্লিষ্টরা জানান, প্রতিদিনের মতোই শনিবার সন্ধ্যা থেকেই যাত্রাপালা ও জুয়ার আসর শুরু হয়। রাত আনুমানিক ১১টার দিকে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা কর্নেল, রিংকুু, যুবলীগের যাদব, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জাহিদ, কাউসারসহ বেশ কয়েকজন মদ্যপ অবস্থায় যাত্রার আসরে প্রবেশ করে। একপর্যায়ে যাত্রার আসরের পাশে যাত্রার গ্রীনরুমে ঢুকে পড়েন এবং সেখান থেকে দুইজন নারী যাত্রাশিল্পীকে অপহরণ করে পাশের বাঁশবাগানে নিয়ে গণধর্ষণ করেন। একপর্যায়ে তারা সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়লে তাদের বাগানে ফেলে চলে যায় ধর্ষকরা।

প্রায় দুই ঘন্টা পর সহকর্মীরা তাদের উদ্ধার করে থানার পাশের জোসনা বিউটি পার্লারের ভেতরে নিয়ে যান। সেখানে শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক রনি বিশ্বাসকে ডেকে এনে চিকিৎসা করানো হয়। এই ঘটনার পর ভোর রাতে যাত্রাদল চলে যেতে চাইলে আয়োজক ইমরান হোসাইন, মনিরুজ্জামান সুমনসহ বেশ কয়েকজন অস্ত্রের মুখে তাদের আটকে রাখে। একপর্যায়ে হলমার্কেটে বসে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শিকদার মোশারফ হোসেন সোনার মধ্যস্থতায় ৫০ হাজার টাকায় বিষয়টি মিমাংসা করতে বাধ্য হন যাত্রাদলটি। বর্তমানে শিল্পীরা আতঙ্কে রয়েছেন। ক্ষোভ চেপে রেখেই যাত্রাপালা চালিয়ে যাচ্ছেন তারা।

গত ২৯ ডিসেম্বর শৈলকুপা নতুন ব্রীজের নিচে নদীর নির্জন চরে অশ্লীল যাত্রা ও জুয়ার আসরের উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও স্থানীয় সংসদ সদস্য আব্দুল হাই। উপজেলা ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও শ্রমিক লীগের এমপি পন্থী ক্যাডাররা জুয়া-যাত্রার আয়োজন করে। অভিযোগ রয়েছে, যাত্রপালায় অশ্লীলতার অভিযোগে উদ্বোধনের শুরু থেকেই আপত্তি জানিয়ে আসছিলেন সাধারণ মানুষসহ অন্তত ৯ টি ইসলামী সংগঠন। তাদের আপত্তির মুখে এখনও জেলা প্রশাসন ও উপজেলা পরিষদ যাত্রাপালা চালানোর অনুমতি দেয়নি। তবে প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই গত ৫ দিন ধরে যাত্রাপালার নামে অশ্লীল নৃত্য ও জুয়ার আসর চালিয়ে যাচ্ছেন আয়োজকরা।

আয়োজক কমিটির সভাপতি দেলোয়ার কবির বলেন, থার্টিফাস্ট নাইটে সবাই একটু আধটু মজা করে। কিন্তু যাত্রাপালায় কোন ধর্ষণের ঘটনা ঘটেনি।

শৈলকুপা থানার ওসি তরিকুল ইসলাম বলেন, গণধর্ষণের কথা তিনি লোকমুখে শুনেছেন। কিন্তু এ ব্যাপারে থানায় কেউ অভিযোগ করতে আসেনি। অভিযোগ দিলে তদন্তসাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তথ্যসূত্রঃ বিডি-প্রতিদিন

জানা হবে অনেক কিছু, চালু হয়েছে জানাবিডি (JanaBD) এন্ডয়েড এপস । বিস্তারিত জানুন..

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 9 - Rating 5.6 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)