JanaBD.ComLoginSign Up

Internet.Org দিয়ে ব্রাউজ করুন আমাদের সাইট ফ্রী , "জানাবিডি ডট কম"

কেটে গেল ভ্রূ, সেখানেই বাসা বাঁধল মাংসখেকো ব্যাকটেরিয়া!

ভয়ানক অন্যরকম খবর 15th May 2017 at 7:37am 362
কেটে গেল ভ্রূ, সেখানেই বাসা বাঁধল মাংসখেকো ব্যাকটেরিয়া!

ইংল্যান্ডের ইয়র্কশায়ারের লিডস এর থাকেন তিন সন্তানের জননী ডোনা কর্ডেন। একদিন পা পিছলে পড়ে গেলেন রান্নাঘারে। কোথাও মাথা ঠুকে গেলো। একটি ভ্রূয়ের ওপর আঘাত পেলেন, কেটে গেল সেখানে। আর সেখানেই আক্রমণ করল এক প্রাণঘাতী ব্যাকটেরিয়া। শুনলেই গা শিউরে ওঠে, ওই ব্যাকটেরিয়া মাংস খেয়ে ফেলে। এ বছরের জানুয়ারির দিকে ঘটে সেই দুর্ঘটনা।

৪৫ বছর বয়সী ওই নারীর ভ্রূ-তে সংক্রমণ ঘটে। বিরল এক রোগ যার নাম 'নেক্রোটিজিং ফ্যাসসিটিস'। এই ব্যাকটেরিয়া আক্রমণের পর ৪ দিন কোমায় ছিলেন তিনি। মরণের সঙ্গে যুদ্ধ করছেন। ব্যাকটেরিয়া খেয়ে ফেলছে তার ত্বক-টিস্যু। হরর ছবির মতো ঘটনা ঘটে চলেছে।

চিকিৎসকরা ডোনার ত্বকের নমুনা নিলেন। কেটে যাওয়া ভ্রূয়ের অংশ মেরামত করলেন। এখন তার আরো সার্জারি লাগবে। কারণ, আগের মুখের যেসব অংশে ফোলা ছিল, সেই অংশগুলো ভেতর থেকে যেন শুকিয়ে যাচ্ছে। ব্যাকটেরিয়া খেয়ে ফেলছে মাংস।

সবাই অবাক হয়েছে। বিস্মিত ডোনা নিজেই। বললেন, আমার এখনো বিশ্বাস হয় না যে, পড়ে গিয়ে ভ্রূ-তে সামান্য আঘাত পেলাম। আর এতেই এমন ভয়ংকর ঘটনা ঘটে গেলো! ডাক্তার কেটে যাওয়া অংশ কয়েকটি সেলাই দিয়েছিলেন। এক্স-রে করার পর দেখা গেলো, কোনো সমস্যা নেই। নিজেও বুঝছিলাম যে, খুব দ্রুত ভালো হয়ে যাবো। বাড়িতে ফিরলাম নিশ্চিন্তে।

কিন্তু পরদিন থেকেই অসুস্থ বোধ করতে থাকলেন ডোনা। তার মেয়ে ২৬ বছর বয়সী জায়দে অ্যাম্বুলেন্সে খবর দিলেন। তার সিটি স্ক্যান করা হলো। কিন্তু তখনো মনে হচ্ছিল, সব তো ঠিকই আছে। ওষুধ দিলেই বাকিটুকুও ঠিক হয়ে যাবে, জানালেন ডোনা।

কিন্তু চিকিৎসক জানালেন ভিন্ন কথা। জানালেন, তিনি এক মারাত্মক সংক্রমণের শিকার হয়েছেন। পরে জানলাম এই মাংসখেকো ব্যাকটেরিয়ার কথা।

নেক্রোটিজিং ফ্যাসসিটিস রোগ বিভিন্ন ধরনের ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণে সৃষ্টি হতে পারে। কিছু ব্যাকটেরিয়া দীর্ঘদিন ত্বকে থেকে যায় কোনো সমস্যা না করেই। তবে রক্তে মেশার পর এদের আসল চেহারা দেখা যায়।

এখন ডোনার আরো অনেক ধরনের সার্জারির দরকার হবে। চেহারা আগের অবস্থায় ফিরিয়ে নিতে বছরখানেক লাগতে পারে।

এই ভয়ংকর রোগ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি ও আরো বিস্তর গবেষণার জন্য ডোনা এবং তার পরিবার অর্থ সংগ্রহের চেষ্টা করছেন। তারা চান না, কেউ এই ব্যাকটেরিয়ার কবলে পড়ুক।


সূত্র : ফক্স নিউজ

Googleplus Pint
Noyon Khan
Manager
Like - Dislike Votes 7 - Rating 5.7 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)