JanaBD.ComLoginSign Up

জেনফোন ৩ ম্যাক্স: পাওয়ার ব্যাংক ও স্মার্টফোন

মোবাইল ফোন রিভিউ Fri at 3:26pm 125
জেনফোন ৩ ম্যাক্স: পাওয়ার ব্যাংক ও স্মার্টফোন

এক ফোনে দুই সুবিধা। একাধারে স্মার্টফোন, আবার সেটিই পাওয়ার ব্যাংক হিসেবে ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে আসুসের জেনফোন ৩ ম্যাক্সের ক্ষেত্রে। শক্তিশালী ব্যাটারি আর দুর্দান্ত ক্যামেরা নিয়ে দেশের বাজারে তাইওয়ানের প্রযুক্তি ব্র্যান্ড আসুস উন্মুক্ত করেছে জেনফোন ৩ ম্যাক্স জেডসি ৫৫৩ কেএল মডেলের ফোনটি।

এর দাম ১৯ হাজার ৯৯০ টাকা। এতে রয়েছে ৪ হাজার ১০০ এমএএইচ ব্যাটারি। এটি প্রায় ৩৮ দিন ধরে স্ট্যান্ডবাই মোডে চলতে সক্ষম। আসুসের দাবি, একবার চার্জেই টানা ১৮ ঘণ্টা ভিডিও দেখা ও ৭২ ঘণ্টা গান শোনা যায় এতে।

ফোনটির সঙ্গে যা আছে: আসুস জেনফোন ৩ ম্যাক্স ফোনটির সঙ্গে ইউ এস বি কেবল, চার্জিং অ্যাডাপ্টর, হেডফোন ও অতিরিক্ত সিলিকন টিপস, ও টি জি ক্যাবল, ইউজার ম্যানুয়াল ও ওয়ারেন্টি পেপার থাকে।

নকশা: আসুসের প্রচলিত স্মার্টফোনগুলোর তুলনায় জেনফোন ৩ ম্যাক্স এর নকশায় বড় ধরনের পরিবর্তন এসেছে। এর পেছনে ব্যবহার করা হয়েছে অ্যালুমিনিয়াম অ্যালয় ও ধাতব কাঠামো। ম্যাট টেক্সচার্ড হওয়ায় ফোনটি দেখতে আকর্ষণীয় ও মজবুত। ফোনটি ধরতে সুবিধা হয়। এর ভলিউম বাটন ও পাওয়ার বাটন রয়েছে ডান পাশে, আর বাঁয়ে থাকছে সিম ট্রে। এতে ২টি সিম ব্যবহারের সুবিধা। ফোনটি ৮.৩ মিলিমিটার পাতলা। এর ওজন ১৭৫ গ্রাম।

ডিসপ্লে: এতে আছে সাড়ে পাঁচ ইঞ্চি মাপের ফুল এইচডি (১৯২০ * ১০৮০) রেজ্যুলেশনের ডিসপ্লে। এর বেজেল ২.২৫ মিলিমিটার। ৭৭.৫% স্ক্রিন টু বডি রেশিও হওয়ায় ফোনটি আকারে ছোট। এর ডিসপ্লেতে ব্যবহৃত হয়েছে ২.৫ডি গ্লাস।

ফিঙ্গার প্রিন্ট সেন্সর: জেনফোন ৩ সিরিজের নতুন সংযোজন ফিঙ্গার প্রিন্ট। ফোনের পেছনে বসানো এ সেন্সর মাত্র ০.০৩ সেকেন্ডে চালু হয়। ৩৬০ ডিগ্রিতে মোট ৫টি আঙুলের ছাপ শনাক্ত করতে সক্ষম ফোনটি।

পারফরম্যান্স: এতে ব্যবহৃত হয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৪৩০ সিরিজের ৬৪ বিট অক্টাকোর প্রসেসর। গ্রাফিকস প্রসেসিংয়ে রয়েছে অ্যাড্রিনো ৫০৫। এর র‍্যাম ৩ গিগাবাইট। স্টোরেজ ৩২ গিগাবাইট। ১২৮ গিগাবাইট স্টোরেজ বাড়ানো যায়।

পাওয়ার ব্যাংক সুবিধা: ৪ হাজার ১০০ এমএএইচ ব্যাটারি থাকায় এটি পাওয়ার ব্যাংক হিসেবে ব্যবহার করা যায়। এতে ‘রিভার্স চার্জিং টেকনোলজি’ থাকায় অন্যান্য ফোন চার্জ দেওয়া যায়।

ক্যামেরা: ফোনটির পেছনে ১৬ মেগা পিক্সেল, লেজার অটো ফোকাস সেন্সর ও ডুয়েল এলইডি ফ্ল্যাশ রয়েছে। দ্বিতীয় প্রজন্মের লেজার অটো ফোকাস সেন্সর থাকায় ঘরের ভেতরে বা বাইরে, কম কিংবা বেশি আলোতে ভালো ছবি তুলতে পারে। ইলেকট্রনিক ইমেজ স্ট্যাবলাইজার আছে এতে।

ইউজার ইন্টারফেস (জেন ইউ আই ৩.০) অ্যান্ড্রয়েড ৬ মার্শম্যালো: ফোনটিতে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ৬ মার্শম্যালোর ওপর ভিত্তি করে ইউআই-জেন ইউয়াই ৩.০ ইন্টারফেস। ফোনের স্ক্রিন বন্ধ থাকার সময়ে কোনো অক্ষর লিখে সরাসরি খোলা যাবে দরকারি অ্যাপ। এতে আছে গেম জিনি নামের ফিচার। যাতে গেম খেলার সময় ফোন স্ক্রিন সোশ্যাল মিডিয়াতে লাইভ করা যায়। অ্যানিমেশন, ফোল্ডার, আইকন, থিম বা ফন্ট-খুব সহজেই মনের মতো পরিবর্তন করা যায় জেন ইউআই দিয়ে। কুইক নোটিফিকেশন মেনু ও নিজ ইচ্ছেমতো পরিবর্তন করা যায় এই ফোনে। থিম স্টোর থেকে নতুন নতুন থিম ইনস্টল করা যায়।

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 4 - Rating 5 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)