JanaBD.ComLoginSign Up

Internet.Org দিয়ে ব্রাউজ করুন আমাদের সাইট ফ্রী , "জানাবিডি ডট কম"

উইন্ডোজে যখন বেদনার নীল

কম্পিউটার টিপস 13th Jun 2017 at 11:04am 290
উইন্ডোজে যখন বেদনার নীল

উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারকারীদের সবচেয়ে বড় অভিজ্ঞতা কি জানেন? ‘ব্লু স্ক্রিন অব ডেথ’ বা নীল পর্দার ত্রুটি।

এর সম্মুখীন হননি এমন ব্যবহারকারী কমই আছেন। বিশ্বের সব উইন্ডোজ ব্যবহারকারীর সবচেয়ে বড় অভিজ্ঞতাও এটি।

এমন হওয়ার সময় কম্পিউটারের সব কাজ থমকে যায় বা হ্যাং হয়ে যায়। আর তখন মনিটরে নীল পর্দাজুড়ে Windows has been shut down to prevent damage to your computer বার্তা ভাসতে থাকে।

সাধারণত কম্পিউটারের যন্ত্রপাতি ও সফটওয়্যারগত কোনো সমস্যা থাকলে এমনটি হয়ে থাকে। এ সমস্যার সঠিক সমাধান করা বেশ কঠিন হয়ে যায় অনেক সময়। কয়েকটি উপায়ে এ সমস্যা থেকে কিছুটা হলেও উতরানো যায়।

সমস্যার কারণ

হার্ডওয়্যার বা সফটওয়্যার ত্রুটি
কখনো কম্পিউটারের যান্ত্রিক বা হার্ডওয়্যারগত ত্রুটির কারণে এমনটি হতে পারে। যন্ত্রপাতি ঠিকঠাক কাজ না করলে হঠাৎ কম্পিউটারের সব কাজ থমকে যাবে এবং নীল পর্দার এমন সমস্যা দেখা দেবে। তাই আগে দেখে নিতে হবে কোনো যন্ত্রাংশ ঝামেলা করছে কি না। কম্পিউটারের যন্ত্রপাতির মধ্যে সমন্বয় না থাকলে এমনটা হতে পারে। তাই কম্পিউটার কেনার সময় বেছে বেছে ভালো মানের যন্ত্রাংশ নিতে হয়। সফটওয়্যারের কারণে হলে বুঝতে হবে উইন্ডোজের রেজিস্ট্রিতে ভাইরাস আক্রমণ করেছে। রেজিস্ট্রিতে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের যাবতীয় কনফিগারেশন, সেটিংস এবং ডেটাবেইসের অপশন সংরক্ষিত থাকে। তাই এখানে ভাইরাস আক্রমণ করলে সরাসরি এমন সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ডাম্প ফাইল সৃষ্টি হলে
ব্লু স্ক্রিন অব ডেথের জন্য কম্পিউটার কোনোভাবে বন্ধ হয়ে গেল বা ক্র্যাশ করলে সিস্টেমে ডাম্প ফাইল তৈরি হয়।

সিস্টেমের ডাম্প ফাইল তৈরি হওয়া বন্ধ করে দেওয়া এমন সমস্যার সমাধান হতে পারে। উইন্ডোজ ভিস্তা এবং ৭-এর জন্য Start/Control Panel থেকে Search বক্সে Advanced লিখুন। সার্চের ফলাফল থেকে View advanced system settings-এ ক্লিক করে নিচের Startup and Recovery থেকে Settings-এ ক্লিক করুন। Write an event to the system log এবং Automatically Restart-এর টিকচিহ্ন তুলে দিন।

Write debugging information থেকে None নির্বাচন করে OK করুন।

রেজিস্ট্রির সমস্যা থাকলে
কম্পিউটার বন্ধ করে আবার চালু করুন। চালু হওয়ার সময় F8 চেপে ধরে রাখুন। কিছুক্ষণ পর তালিকা থেকে Safe mode নির্বাচন করে এন্টার করুন। কম্পিউটার সেফ মুডে চালু হলে উইন্ডোজের রেজিস্ট্রি ও ভাইরাস পরিষ্কার করতে হবে। এ জন্য নিবন্ধনকৃত যেকোনো ভালো অ্যান্টিভাইরাস দিয়ে কম্পিউটারের ভাইরাস স্ক্যান করে নিতে হবে। মূলত C:\/ ড্রাইভকে ভালো করে স্ক্যান করে নিন। রেজিস্ট্রি ক্লিন করার জন্য ভালো হয় সি-ক্লিনার নামের সফটওয়্যারটি ব্যবহার করা।

www.piriform.com/ccleaner ওয়েব ঠিকানা থেকে সফটওয়্যারটি নামিয়ে নিয়ে ইনস্টল করে চালু করুন। এর Registry বোতাম চেপে আবার Scan for an Issue বোতাম চাপুন। কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে Fix selected issues-তে ক্লিক করুন। বার্তা এলে No চেপে Fixed all issues চাপুন।

Googleplus Pint
Noyon Khan
Manager
Like - Dislike Votes 13 - Rating 5.4 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)