JanaBD.ComLoginSign Up

Internet.Org দিয়ে ফ্রিতে ব্রাউজ করুন আমাদের সাইট :) Search করুন , "জানাবিডি ডট কম" পেয়ে যাবেন ।

সম্পর্কে যাবার আগে যে ৯টি ব্যক্তিগত প্রশ্ন অবশ্যই করবেন

লাইফ স্টাইল 19th Apr 2016 at 1:02am 339
সম্পর্কে যাবার আগে যে ৯টি ব্যক্তিগত প্রশ্ন অবশ্যই করবেন

একজন মানুষের সাথে পরিচয়ের পর তাকে জানবেন কীভাবে? সবচেয়ে ভাল হয় প্রশ্ন করা। বিশেষ করে ছেলেদের ক্ষেত্রে। ছেলেরা নিজেদের কথা বলতে চায় না, তা নয়। কিন্তু তারা সহজে ব্যক্তিগত কথাগুলো বলে ফেলতে সাচ্ছন্দ্যবোধ করে না। কিন্তু আপনি যখন আপনার নতুন পরিচিত ব্যক্তিটি সম্পর্কে আগ্রহী তখন এর এগোনো ঠিক হবে কি না বা ইনিই সেই মানুষটি কিনা যার সাথে আপনি ঘনিষ্ট সম্পর্কের কথা ভাবতে পারেন তা বোঝার জন্য সাহায্য নিতে পারেন কয়েকটি মৌলিক কিন্তু কার্যকরী প্রশ্নের। এগুলোর উত্তর যদি সঠিকভাবে পেয়ে যান তাহলে ভবিষ্যতের সিদ্ধান্ত ভুল হবে না আপনার নিশ্চিত।

→ আপনার জীবনে সবচেয়ে বিব্রতকর ঘটনাটি কী?
এই প্রশ্নের উত্তরে অনেক উত্তর থাকতে পারে আবার সে উত্তর নাও দিতে পারে। আপনি শুধু তার আচরণ খেয়াল করুন। যদি মানুষটি আপনাকে নিজের জীবনের এমন সব ঘটনার কথা বলে যেই পরিস্থিতিগুলো নাজুক ছিল তার জন্য, ছিল বিব্রতকরও তাহলে বুঝতে হবে সে আপনার সাথে নিজেকে সহজ করে নিয়েছে। আপনাকে নিজের জীবনে এটুকু গ্রহণযোগ্যতা ইতিমধ্যেই দেওয়া হয়ে গেছে। আর যদি মানুষটি বলতে না চায় বা ইতস্তত বোধ করে তাহলে হয় সে হীনমন্যতায় ভোগে অথবা আপনার সাথে এমন ঘটনা বলতে আগ্রহী নয়।

→ কী করবেন যদি আপনার এক্স গার্লফ্রেন্ড ফিরে আসতে চায়?
খুবই জরুরী প্রশ্ন। তবে আমাদের দেশের মানুষের মন মানসিকতা বিচারে একটি কথা প্রথমেই বলা দরকার, তা হল কখনোই আশা করবেন না যে আপনিই হতে যাচ্ছেন মানুষটির জীবনে প্রথম প্রেমিকা। এটি অস্বাভাবিক। একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষ তার জীবনে অনেক সম্পর্ক পেরিয়ে আসতে পারে। তাই এটা আগে থেকেই মেনে নিন। এখন আপনি যখন প্রশ্নটি করছেন তখন তিনি কি উত্তর করছেন খেয়াল করুন। তিনি যদি বলেন, ফিরে যাবেন, তাহলে আর কোন কথাই থাকে না। আর যদি বলেন, তিনি নম্রভাবে ফিরিয়ে দেবেন, তার মানে তিনি পুরোনো সম্পর্কটি থেকে পুরোপুরি সরে এসেছেন। আর যদি তিনি বলেন, পুরোনো প্রেমিকাকে বলবেন, তিনি আর কারও কথা ভাবছেন মানে আপনার কথা ইঙ্গিত করেন তাহলে পুরো ফ্লোরই আপনার জন্য প্রস্তুত।

→ আপনার কি ধরণের ট্যাটুর প্রতি আগ্রহ?
ছেলেরা কিন্তু ট্যাটু খুব পছন্দ করে। এখন একজন মানুষ তার নিজের শরীরে একেবারে স্থায়ীভাবে এঁকে রাখতে চায় কি, সেটা দিয়ে আপনি তার পছন্দ, গুরুত্ব বিচার করতে পারেন। তার উত্তর হতে পারে মা এর নামের প্রথম বর্ণ। আবার হতে পারে ঈগল, এমনকি কার্টুন ক্যারেক্টারও। তার মনের দৃঢ়তা, পছন্দ অথবা ছেলেমানুষী ইত্যাদি সম্পর্কে অনেক তথ্য পেতে পারেন আপনি এই একটি প্রশ্নের মাধ্যমে।

→ আপনি এপর্যন্ত কয়টি সম্পর্কে গেছেন?
হ্যাঁ, উত্তরটি মিথ্যা হতে পারে। কৌশলে জিজ্ঞেস করুন। তিনি যদি কম সংখ্যা উল্লেখ করেন, বুঝতে হবে তিনি সম্পর্কের ব্যাপারে সিরিয়াস। আর যদি সংখ্যাটি হয় বড় তাহলে বুঝতে হবে তিনি আসলে সম্পর্ক করা, টিকিয়ে রাখা বা প্রতিশ্রুতি রাখার ব্যাপারে খুব একটা সিরিয়াস নন।

→ কখন খুব রাগ হয়?
আপনি হয়ত ভাবছেন রেগে তো সবাই যায়, এটা আবার কেমন প্রশ্ন! মানুষকে বুঝতে হলে তার রাগের কারণ বোঝা জরুরী। যে মানুষটি খুব অল্পতে রেগে যায়, দূর্ব্যবহার করে, অথবা পথাঘাটে সিন ক্রিয়েট করতে পারে তার ব্যক্তিত্ব আসলে খুবই দূর্বল। অপরদিকে যে মানুষটি সহজে রেগে যায় না, বরং অনেক বেশী ধৈর্য্যশীল ও তার ব্যক্তিত্বও অনেক বেশী দৃঢ়।

→ আপনি কী ধরণের প্রশ্নের উত্তর করেন না?
এই প্রশ্নটি সহজেই আপনাকে নিয়ে যাবে তার একান্ত ব্যক্তিগত বা ক্ষত আছে এমন কোন স্মৃতির দ্বারে। তিনি যদি প্রশ্নের উত্তর দেন তাহলে তো জেনেই গেলেন এমন দরকারি বিষয়টি। কিন্তু খুব সম্ভাবনা আছে প্রশ্নটি এড়িয়ে যাবার। তাই সাবধানে প্রশ্ন করুন।

→ আপনার আর্থিক অবস্থা কী?
এটি আপনাকে উত্তর দেবে অনেক কিছুর। টাকাপয়সার খোঁজ নিচ্ছেন বলে হীনমন্যতায় ভোগার বা বিব্রত হওয়ার কিছু নেই। একজন মানুষ জীবন সম্পর্কে কতটা সিরিয়াস তা বোঝা যায় তার আর্থিক অবস্থা বা ভবিষ্যতে এই বিষয়ে কি করবেন সেই পরিকল্পনা দ্বারা। নিজের পকেটের খবর কিন্তু আমরা সবার সাথে শেয়ার করি না। তো এই খবরটি যদি ভদ্রলোক আপনার সাথে শেয়ার করেন তাহলে এটাও বোঝা গেল যে আপনাকে তিনি যথেষ্টই গুরুত্ব দিচ্ছেন বা কাছের ভাবছেন।

→ ভালবাসার মানে কি আপনার কাছে?
হ্যাঁ, খুবই সহজ প্রশ্ন এটি। উত্তরও সহজ। তবু নতুন সম্পর্ক শুরু করার আগে তার মুখ থেকেই একবার জেনে নিন। সবাই একভাবে সম্পর্কের চর্চা করে না। কেউ প্রেম বলতে বোঝে প্রেম, বিয়ে, পরিবার। আবার কেউ কেউ প্রেম বলতে বোঝে শুধুই প্রেম। আবার কারও কাছে হয়ত ভালবাসা কোন মানেই রাখে না। এমন মানুষ হয়ত বলবেন, "আমি এসবে বিশ্বাস করি না"।

→ শেষ সম্পর্কটি কেন টেকে নি?
প্রত্যেকটি সম্পর্কই অনেক স্পেশাল হয়। ফেলে আসা সম্পর্কটির অনেক বাজে অভিজ্ঞতা থাকতে পারে। কিন্তু ভাল সময়টুকুর প্রতি শ্রদ্ধা থাকা জরুরী। তিনি যদি সমস্ত দোষ তার প্রাক্তন প্রেমিকার ঘাড়ে চাপিয়ে দেন তাহলে বুঝতে হবে তিনি নিজের ত্রুটিগুলো লুকাচ্ছেন। আজ আপনার কাছে নিজেকে যতটা মহৎ হিসেবে তুলে ধরছেন ততটা তিনি হয়ত নন।

প্রশ্নগুলো বোর্ড পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের মত লাগছে হয়ত। কিন্তু অবশ্যই এভাবে সরাসরি জিজ্ঞেস করবেন না। কৌশলেজিজ্ঞেস করবেন, কারণ সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য উত্তরগুলো ঠিকঠাক মত পাওয়া জরুরী।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 6 - Rating 5 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)