JanaBD.ComLoginSign Up

কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর করে কচু শাক

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস 25th Jul 17 at 11:34pm 130
কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর করে কচু শাক

যাদের কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা আছে, তাঁরা প্রচুর কচু শাক খেতে পারেন। কারণ কচুতে আছে অনেক আঁশ। যা খাবার সহজে হজম করতে সাহায্য করে। এছাড়াও কঁচু শাকে রয়েছে ভিটামিন -এ, ভিটামিন -সি, লৌহ এবং ক্যালসিয়াম। চোখের জ্যোতির জন্য কচু শাকের উপকারিতা অনন্য। কচু একটি গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টিকর সবজি। এ দেশে কচু তেমন সমাদৃত নয় এবং অনেকটা অবহেলার দৃষ্টিতে দেখা হয়। এ শাক দুই প্রকার। যথা. . .

(১) সবুজ কচু শাক ও
(২) কালো কচু শাক।

খাদ্য উপযোগী প্রতি ১০০ গ্রাম সবুজ ও কালো কচু শাকে যথাক্রমে ১০২৭৮ ও ১২০০০ মাইক্রোগ্রাম ক্যারোটিন রয়েছে। এ ক্যারোটিন থেকেই আমরা ভিটামিন এ পেয়ে থাকি। এ ছাড়া প্রতি ১০০ গ্রাম সবুজ কচু শাক থেকে ৩.৯ গ্রাম প্রোটিন, ৬.৮ গ্রাম শর্করা, ১.৫ গ্রাম স্নেহ বা চর্বি, ২২৭ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ১০ মিলিগ্রাম লৌহ, ০.২২ মিলিগ্রাম ভিটামিন বি-১ (থায়ামিন), ০.২৬ মিলিগ্রাম ভিটামিন বি-২ (রাইবোফেবিন), ১২ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি ও ৫৬ কিলো ক্যালোরি খাদ্যশক্তি পাওয়া যায়।

প্রয়োজনীয় পুষ্টির জোগান দেয়া ছাড়াও প্রাচীনকাল থেকে কচুকে বিভিন্ন রোগের ওষুধ হিসেবে ব্যবহারের প্রচলন রয়েছে। মুখী ও পানিকচুর ডগা দেহের বিভিন্ন রোগের ওষুধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়। তাছাড়া জ্বরের রোগীকে শরীরের তাপমাত্রা কমানোর জন্য দুধকচু খাওয়ানো হয়। ওলকচুর রস, উচ্চরক্তচাপের রোগীকে প্রতিষেধক হিসেবে খাওয়ানো হয়। আবার মান কচুর ডগা ও পাতা বাতের রোগীকে খাওয়ানোর প্রথা এ দেশের ঘরে ঘরে প্রচলিত রয়েছে। কচু শাকে পর্যাপ্ত আঁশ থাকায় এটি দেহের হজমের কাজে সহায়তা করে।

আয়রনসমৃদ্ধ বলে এর সমাদরও বেশি। রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা কমে গেলে সব ডাক্তাররাই কচু শাক খাওয়ার পরামর্শ দেন। কচু শাকে আছে প্রোটিন, চর্বি, ক্যালসিয়াম, শর্করা, আয়রন, খাদ্যশক্তি, ভিটামিন এ, বি৬ ও সি। সাধারণ কচুর ডগা এবং কালো রঙয়ের কচু শাকে আয়রন থাকে প্রচুর পরিমাণে।

রক্তশূন্যতায় ভোগা রোগীদের জন্য কচু শাক খাওয়া একরকম আবশ্যক। যাদের কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা আছে, তাঁরা প্রচুর কচু শাক খেতে পারেন। কারণ কচুতে আছে অনেক আঁশ। যা খাবার সহজে হজম করতে সাহায্য করে। সারা দেহে অক্সিজেনের সরবরাহ বজায় রাখতে কচু শাকের জুড়ি নেই। রক্তে হিমোগ্লোবিনের মাত্রা কমে গেলে এমনিতেই শরীরে অক্সিজেনের সরবরাহ কমে যায়। সেই সরবরাহ সচল রাখতে কচু শাক অনেক বেশি কার্যকর।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 16 - Rating 5.6 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি
রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে ও কোষ্ঠকাঠিন্য উপশমে মুলা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে ও কোষ্ঠকাঠিন্য উপশমে মুলা
Yesterday at 4:02pm 68
শীতে কাশি হলে করণীয় শীতে কাশি হলে করণীয়
18 Jan 2018 at 10:05am 149
যখন তখন ঘুমিয়ে পড়ছেন, বড় কোনও অসুখ নয়তো! যখন তখন ঘুমিয়ে পড়ছেন, বড় কোনও অসুখ নয়তো!
18 Jan 2018 at 9:37am 68
শীতকালে রোগ প্রতিরোধের ৮ উপায় শীতকালে রোগ প্রতিরোধের ৮ উপায়
17 Jan 2018 at 11:49am 160
কিডনিতে পাথর? লক্ষণ বুঝবেন যেভাবে.. কিডনিতে পাথর? লক্ষণ বুঝবেন যেভাবে..
16 Jan 2018 at 12:43pm 272
ঠান্ডাজনিত রোগ ও গ্যাসট্রিকের সমস্যা দূর করে গোলমরিচ ঠান্ডাজনিত রোগ ও গ্যাসট্রিকের সমস্যা দূর করে গোলমরিচ
14 Jan 2018 at 11:26am 116
গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা ও বমি ভাব দূর করবে দারচিনি গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা ও বমি ভাব দূর করবে দারচিনি
14 Jan 2018 at 9:36am 118
মানব দেহে নীরবে বাসা বাঁধে যেসব ক্যান্সার মানব দেহে নীরবে বাসা বাঁধে যেসব ক্যান্সার
10 Jan 2018 at 11:01pm 146

পাঠকের মন্তব্য (0)

Recent Posts আরও দেখুন
টিভিতে আজকের খেলা : ২১ জানুয়ারি, ২০১৮টিভিতে আজকের খেলা : ২১ জানুয়ারি, ২০১৮
টিভিতে আজকের চলচ্চিত্র : ২১ জানুয়ারি, ২০১৮টিভিতে আজকের চলচ্চিত্র : ২১ জানুয়ারি, ২০১৮
আজকের রাশিফল : ২১ জানুয়ারি, ২০১৮আজকের রাশিফল : ২১ জানুয়ারি, ২০১৮
আজকের এই দিনে : ২১ জানুয়ারি, ২০১৮আজকের এই দিনে : ২১ জানুয়ারি, ২০১৮
ফ্রেঞ্চ ফ্রাই তৈরির সবচেয়ে সহজ রেসিপিফ্রেঞ্চ ফ্রাই তৈরির সবচেয়ে সহজ রেসিপি
বাংলালিংক গ্রাহকরা এখন পাচ্ছেন মাত্র ৫টাকায় 1GB!বাংলালিংক গ্রাহকরা এখন পাচ্ছেন মাত্র ৫টাকায় 1GB!
সকাল সকাল চুনকামসকাল সকাল চুনকাম
মাতাল আর সাপের মধ্যে মিলমাতাল আর সাপের মধ্যে মিল