.
JanaBD.ComLoginSign Up
JanaBD.Com অর্থাৎ এ সাইটে টপিক এবং এসএমএস পোস্ট করার নিয়মাবলী (Updated)

প্রোটিয়াদের বিপক্ষে বড় চ্যালেঞ্জের সামনে টাইগাররা

ক্রিকেট দুনিয়া Sep 26 at 9:10pm 624
প্রোটিয়াদের বিপক্ষে বড় চ্যালেঞ্জের সামনে টাইগাররা

আর একদিন বাদেই পচেফস্ট্রুমে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। যদি বলা হয় লড়াইটি অসম, বোধ করি এতটুকুও বাতুলতা হবে না। টেস্ট র‌্যাংকিংয়ের দ্বিতীয় স্থানে ক্রিকেটে সবসময়ের শক্তিশালী প্রোটিয়ারা। এ ফরমেটে টাইগারদের অবস্থান যেখানে নবম।

তারপরেও লড়াইয়ের বাস্তবতায় প্রতিপক্ষ যেখানে কখনই দুর্বল বলে গণ্য হয় না, এখানে সেই বিবেচনায় বোধ করি বাংলাদেশও বিবেচ্য হবে। মুশফিকদের সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হোম সিরিজের সর্বোচ্চ সাফল্য বিদেশের মাটিতে টেনে আনা।

রঙিন জার্সির পাশাপাশি সাদা পোশাকেও মরার আগে মরে যাওয়ার কলঙ্ক মোচনের প্রমাণ তিন বছর হলো লাল-সবুজের ক্রিকেটাররা বেশ দক্ষ হাতেই দিয়েছে। কী দেশে কি বিদেশে। ‘বিনা যুদ্ধে নাহি দিব সূচাগ্র মেদিনি’ প্রবাদের স্বার্থক বাস্তবায়ন দেখিয়েছে মুশফিক ও তার দল। সেটা হোক নিউজিল্যান্ড, ভারত কিংবা শ্রীলঙ্কার মাটিতে।

তারপরেও ফাফ ডু প্লেসি ও হাশিম আমলাদের বিপক্ষে আসন্ন এই সিরিজে সফরকারীদের কয়েকটি বিভাগের পশ্চাৎপদতা বেশ ভাবাচ্ছে। এর প্রথমটি হল অভিজ্ঞতা।

৯ বছর আগে বাংলাদেশের যে স্কোয়াডটি দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে গিয়েছিল, সেই স্কোয়াডের মাত্র তিনজন আছেন এই সিরিজে। তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও ইমরুল কায়েস। টেস্ট থেকে ছয় মাসের বিশ্রামে না গেলে সাকিবও থাকতেন। বাদ বাকি যারা আছেন সবাই তরুণ। দক্ষিণ আফ্রিকার কন্ডিশনের সঙ্গে যাদের পরিচয়টা এবারই প্রথম।

দ্বিতীয়টি হলো ব্যাটিং। ওপেনিংয়ে তামিম ইকবাল থাকলেও ইনজুরিতে পড়ায় সৌম্য আদৌ থাকবেন কী না সেই ব্যাপারটি এখনই নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তবে যেহেতু ইমরুল আছেন তাই কিছুটা হলেও রক্ষা। কিন্তু গেল বেশ কয়েকটি সিরিজে তিনি ব্যাটিং করেছেন তিনে। তাই তার ব্যাট থেকে রানের ভান্ডার কতটুকু সমৃদ্ধ হবে সেই ভাবনা কিন্তু থেকেই যাচ্ছে।

এরপর মিডল অর্ডারে নেই টাইগারদের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। যে বিষয়টিকে এই সিরিজে বাংলাদেশের অন্যতম পশ্চাৎপদতার কারণ ধরা হচ্ছে। তবে এখানে দলকে সমৃদ্ধ করতে পারেন দলে ফেরা মাহমুউল্লাহ রিয়াদ। সবশেষ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হোম সিরিজের (১-১) স্কোয়াডে ছিলেন না এ অভিজ্ঞ ব্যাটিং অলরাউন্ডার।

তৃতীয় হলো, সফরকারী ব্যাটসম্যানদের উইকেটে টিকে থাকার সামর্থ্য। স্বাগতিকদের সাথে জিততে বা ড্র করতে হলে আগে ব্যাটে নেমে হোক বা পরে, চ্যালেঞ্জিং স্কোরের বিকল্প নেই। সেশন ‍বাই সেশন ব্যাটসম্যানদের ধৈর্যের পরীক্ষা দিতে হবে। তা না হলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেওয়া সম্ভব হবে না।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের আগে টাইগাররা এমন উইকটে খেলে গেছে যা ছিল লো বাউন্স ও টার্নে ভরা। এখন বল টার্ন দূরে থাক বাউন্সে ভরা থাকবে। কাজেই ব্যাটসম্যানদের জন্য কাজটি কঠিন। কেননা বল পিচআপ করা মাত্রই উঠে যাবে মাথা দিয়ে এবং মুখ সমান উচ্চতায়।

চতুর্থটি, স্পিনারদের সংগ্রাম। সন্দেহাতীতভাবেই বাংলাদেশের এযাবৎকালের সাফল্যের পেছনে পেস বোলারদের পাশাপাশি স্পিনারদের ভূমিকা অনস্বীকার্য। কিন্তু দুঃখজনক হলেও একথা সত্য যে দক্ষিণ আফ্রিকার ওই কন্ডিশনে পেসারদের তুলনায় বাংলাদেশের স্পিনারদের সংগ্রাম করতে হবে। তবে এই ক্ষেত্রে মুশফিকরা এগিয়ে থাকতেন যদি একজন লেগি থাকতো। কারণ, লেগ স্পিনাররা যে কোন উইকেটেই বল টার্ন করার সামর্থ্য রাখেন। সেখানে বাংলাদেশের স্পিনারদের সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ।

তবে টাইগার স্পিনাররা যে কাজটি করতে পারেন, সঠিক লাইন ও লেংথ বজায় রেখে রান চাপাতে পারেন। ক্রমাগত কার্যকর ডেলিভারি দিয়ে ব্যাটসম্যানকে ভুল খেলাতে চেষ্টা করতে পরেন। আর কিছু না হোক ব্যাটসম্যান যেন তাকে সমীহ করে খেলে সেই কাজটি করতে পারলে বাউন্সে ভরা এই উইকেটে অনেকটাই সফল হতে পারবেন তাইজুল, মিরাজরা।

এদিকে প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানদের উপরে প্রভাব বিস্তার করে দলকে সুখের মুহূর্ত উপহার দেয়ার যে ভাবনা থেকে অধিকসংখ্যক টাইগার পেসারকে (শফিউল ইসলাম, রুবেল হোসেন, তাসকিন আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান, শুভাশীষ রায়) দলে রাখা হয়েছে, নির্বাচকদের সেই আস্থার প্রতিদান দিতে তাদের ধৈর্য ধরে নিজেদের মেলে ধরার প্রমাণ দিতে হবে। তাহলেই কেবল ভালো একটি লড়াইয়ের আশা করা যায়।

কন্ডিশন, শক্তিমত্তা, মাঠের রণকৌশল সব বিবেচনায়ই এগিয়ে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা। জিততে হলে সফরকারীদের তিন বিভাগেই সেরা খেলার কোন বিকল্প নেই। মনে রাখতে হবে শুধু ২০ উইকেট নেয়ার সামর্থ থাকলেই হবে না থাকতে হবে ২০ উইকেট ধরে রাখার সামর্থও।

টেস্ট ক্রিকেটে ১০ বারের মুখোমুখি লড়াইয়ে আট ম্যাচেই জিতেছে দ. আফ্রিকা। সবশেষ দু’বছর আগে প্রোটিয়াদের বাংলাদেশ সফরে বৃষ্টিবিঘ্নিত দু’টি টেস্ট ড্রয়ে নিষ্পত্তি হয়।

তথ্যসূত্রঃ অনলাইন

JanaBD.Com অর্থাৎ এ সাইটে টপিক এবং এসএমএস পোস্ট করার নিয়মাবলী (Updated)

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 8 - Rating 5 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি
রেকর্ড ডাবল সেঞ্চুরিয়ান রোহিতের র‌্যাংকিংয়ে উন্নতি রেকর্ড ডাবল সেঞ্চুরিয়ান রোহিতের র‌্যাংকিংয়ে উন্নতি
Yesterday at 3:42pm 355
অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশেজ পুনরুদ্ধার অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশেজ পুনরুদ্ধার
Yesterday at 3:24pm 150
ওয়ানডের দ্বিতীয় ‘বাজে’ দল শ্রীলঙ্কা! ওয়ানডের দ্বিতীয় ‘বাজে’ দল শ্রীলঙ্কা!
Yesterday at 3:22pm 594
টি-টেনের রেকর্ডবুকে ‘বুমবুম’ তামিম টি-টেনের রেকর্ডবুকে ‘বুমবুম’ তামিম
Sun at 5:54pm 917
৩ নাম্বারে ব্যর্থ সাকিব-সাবির-ইমরুল, যাকে খেলাতে পরামর্শ দিলেন সাঙ্গাকারা ৩ নাম্বারে ব্যর্থ সাকিব-সাবির-ইমরুল, যাকে খেলাতে পরামর্শ দিলেন সাঙ্গাকারা
Sun at 5:48pm 1,308
ইংল্যান্ডের অনাকাঙ্ক্ষিত রেকর্ড ইংল্যান্ডের অনাকাঙ্ক্ষিত রেকর্ড
Sun at 5:40pm 550
এবার সাকিবকে এত বড় অপমান করল মরগান! এবার সাকিবকে এত বড় অপমান করল মরগান!
Sun at 9:05am 1,395
ওভারে সাত ছক্কার রেকর্ড! ওভারে সাত ছক্কার রেকর্ড!
Sat at 7:40pm 834

পাঠকের মন্তব্য (0)

Recent Posts আরও দেখুন

আজকের রাশিফল :  ১৯  ডিসেম্বর, ২০১৭আজকের রাশিফল : ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৭
অভিজ্ঞতা ছাড়াই আবুল খায়ের গ্রুপে চাকরিঅভিজ্ঞতা ছাড়াই আবুল খায়ের গ্রুপে চাকরি
জেনে নিন ফোনের আইএমইআই নম্বরের খুঁটিনাটিজেনে নিন ফোনের আইএমইআই নম্বরের খুঁটিনাটি
দ্রুতগতির নতুন ফোন আনলো হুয়াওয়েদ্রুতগতির নতুন ফোন আনলো হুয়াওয়ে
নকিয়া সিক্সের ছবি ফাঁসনকিয়া সিক্সের ছবি ফাঁস
আমাকে কেন এইরকম ড্রেস পরানো হলো: মৌআমাকে কেন এইরকম ড্রেস পরানো হলো: মৌ
বলিউডের যে নয়টি ছবি ১৮ বছররের কম বয়সীদের দেখা নিষেধবলিউডের যে নয়টি ছবি ১৮ বছররের কম বয়সীদের দেখা নিষেধ
বিয়ের পরে রোজ রাতে স্বামীর সঙ্গে এই কাজটা করতে দারুণ মজা পান বিদ্যাবিয়ের পরে রোজ রাতে স্বামীর সঙ্গে এই কাজটা করতে দারুণ মজা পান বিদ্যা