JanaBD.ComLoginSign Up

Internet.Org দিয়ে ফ্রিতে ব্রাউজ করুন আমাদের সাইট :) Search করুন , "জানাবিডি ডট কম" পেয়ে যাবেন ।

প্রতিদিনের গোসলে সাবান কি স্বাস্থ্যকর?

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস 21st Apr 2016 at 9:51am 229
প্রতিদিনের গোসলে সাবান কি স্বাস্থ্যকর?

আমরা কী ভুলভাবে গোসল করছি?

শরীরকে ময়লা ও জীবাণুমুক্ত রাখতে আমরা গোসলের সময় সাবান ব্যবহার করি। তবে গোসলের সময় নিয়মিত সাবানের ব্যবহার করলে ভালোর চেয়ে খারাপই বেশি হয়। বিশেষ করে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবানের ব্যবহারে এই ক্ষতি বেশি হয়। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের চিকিৎসকরা এই কথা জানিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদ মাধ্যম দ্য ইনডিপেনডেন্টের একটি প্রতিবেদনে এই তথ্য জানা যায়।

অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান প্রখর ধরনের রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে গঠিত। সারা দিনে শরীরে যে ময়লা ও জীবাণু হয় সেগুলো দূর করতে আমরা এই সাবানের ব্যবহার করি। তবে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবানগুলো শরীরের জন্য ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াগুলো প্রতিরোধ করা বা মেরে ফেলার পাশাপাশি উপকারীগুলোকেও প্রতিরোধ করে।

মেরিল্যান্ডের ডাইজেসটিভ সেন্টার ফর ওমেন ইন শেভি চেজের প্রতিষ্ঠাতা রোবেইন চাটকান বলেন, ‘আমরা প্রতিদিন গা মেজে গোসল করি ব্রন ও একজিমা থেকে দূরে থাকতে। খুব ঘেমে যাওয়ার পরও প্রতিদিন পানি দিয়ে আলতোভাবে ধুয়ে পরিষ্কার করাই যথেষ্ট।

তিনি আরো বলেন, ময়লা রোগ তৈরি করে না। তবে ধীরে ধীরে ত্বকের ভালো ব্যাকটেরিয়াগুলোকে মেরে ফেলে; যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। তাই গোসল করা প্রয়োজন।

এ ছাড়া রোগ প্রতিরোধে নিয়মিত গরম পানি এবং সাবান দিয়ে হাত ধুলেও বেশি স্যানিটাইজার ব্যবহার না করাই ভালো বলে মত প্রকাশ করেছেন তিনি।

গত বছর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল জেল বিশ্বব্যাপী ব্যাপক ব্যবহারের ফলে ব্যাকটেরিয়াল ইনফেকশনগুলোর চিকিৎসা করা এখন অনেক ক্ষেত্রেই কঠিন হয়ে পড়ছে। কারণ জীবাণুগুলো ওষুধ প্রতিরোধের ক্ষমতা তৈরি করে ফেলছে। অর্থাৎ এই ধরনের সাবানগুলো অতিরিক্ত ব্যবহারের ফলে ব্যাকটেরিয়া নিধনের ওষুধ বা সাবানগুলোর কার্যক্ষমতা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, জীবাণুগুলো নিজেদের মধ্যে শক্তি বাড়িয়ে ওষুধের কার্যক্ষমতাকে নষ্ট করে দিচ্ছে। এর ফলে এগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন হয়ে পড়ছে।

তাই প্রতিদিন সাবান বা অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান ব্যবহার না করে কেবল পানি দিয়ে গোসল করাই ভালো বলে মতামত বিশেষজ্ঞদের।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 9 - Rating 5.6 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)