JanaBD.ComLoginSign Up

মানসিক চাপে করণীয়

লাইফ স্টাইল 22nd Apr 2016 at 11:33pm 314
মানসিক চাপে করণীয়

মানুষের জীবনে মানসিক চাপ থাকবে এটা একটা চিরন্তন ব্যাপার। কিন্তু যখন এই চাপ সামলানো কঠিন হয় তখনই আমাদের মাঝে এই চাপ নিয়ন্ত্রের প্রয়োজন হয়। তাই আসুন জেনে নেই অতিরিক্ত মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণে কিছু করনীয় -

একটি কলা বা আলু খেয়ে ফেলুনঃ মানসিক চাপ কমাতে সব চাইতে বেশি সহায়তা করে পটাশিয়াম। কলা এবং আলুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম যা খুব দ্রুত মানসিক চাপ কমাতে সহায়তা করে।

একটি প্রাণী পুষুণঃ বিড়াল, কুকুর এবং মাছ জাতীয় প্রাণী পুষুন। এটি মানসিক চাপ তাৎক্ষণিকভাবে কমিয়ে দিতে বেশ সহায়তা করে। এদের কর্মকাণ্ড দেখতে দেখতে আপনি ভুলেই যাবেন কোন কারণে আপনি চাপে ছিলেন।

জোরে জোরে কবিতা আবৃতি বা পছন্দের গান করুনঃ নিজের মানসিকচাপ কমাতে অনেক বেশি কার্যকর নিজের পছন্দের জিনিসগুলোই। যখন খুব বেশি অসহ্য মনে হতে থাকবে সবকিছু তখন জোরে জোরে নিজেকে শুনিয়ে পছন্দের গান বা কবিতা আবৃতি করুন।

যে কারণে মানসিক চাপ হচ্ছে সে কারণটিকে কিছুক্ষণ বকে নিনঃ নিজের মনে মনেই মানসিক চাপের কারণটিকে বকে দিন আচ্ছা মতো। ভাবছেন খুব বেশি ছেলেমানুষি? হতে পারে, কিন্তু এটি অনেক বেশি কার্যকর। কারণ এতে করে আপনার মনের নেতিবাচক প্রভাব কেটে যাবে।

যোগ ব্যায়াম করা চেষ্টা করুনঃ যোগ ব্যায়ামের ক্ষমতা সম্পর্কে অনেকেই ধারণা রাখেন না। মাত্র পাঁচ মিনিটের যোগ ব্যায়াম মানসিক প্রশান্তি আনার জন্য যথেষ্ট। নিরিবিলি জায়গা খুঁজে পাঁচ মিনিটের জন্য বসে যান যোগ ব্যায়ামে। মানসিক চাপ দূরে পালাবে।

শরীরে সমস্ত জোর খাটিয়ে চিৎকার দিনঃ বলুন তো রোলার কোস্টার কিংবা ভয়ের কোনো রাইডে উঠলে মানুষ চিৎকার করে কেন? চিৎকার এমন একটি ইমোশন যা আমাদের ভেতরের নার্ভাসনেস দূর করতে সহায়তা করে। সেই সঙ্গে মনেরে উপর এর প্রভাবও। তাই মানসিক চাপ খুব বেশি অসহ্য হয়ে গেলে চিৎকার করুন।

গাছের দিকে একটানা তাকিয়ে থাকুন খানিকক্ষণঃ সবুজ রঙ এবং প্রকৃতি দুটোই আমাদের মস্তিষ্কের নিউরনের জন্য ভালো। এটি আমাদের মস্তিষ্ককে রিল্যাক্স হতে সহায়তা করে। তাই মানসিক চাপ দূর করতে গাছের দিকে তাকিয়ে থাকুন কিছুক্ষণ।

ছবি আঁকার চেষ্টা করুনঃ আপনাকে বড় কোনো আঁকিয়ে হতে বলা হচ্ছে না। নিজের মনের অনুভূতি নিজের মতো করে প্রকাশ করে ফেললে অনেকটা চাপ কমে যায়। আর সেকারণেই আঁকতে পারেন ছবি।

বেলুন ফোলানঃ বেলুন ফোলানোর জন্য আপনার একবার জোরে শ্বাস নিতে হবে এবং প্রয়োজন অনুযায়ী ছাড়তে হবে। এর ফলে শ্বাসপ্রশ্বাসের অনেক ভালো ব্যায়াম হয়। এতে করে মাংসপেশি ও মস্তিষ্ক রিল্যাক্স হয়।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 15 - Rating 5.3 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)