JanaBD.ComLoginSign Up

কঙ্গনার নগ্ন ছবির প্রমাণ দিলেন হৃতিক

সিনেমা জগৎ 23rd Apr 2016 at 6:51pm 1,416
কঙ্গনার নগ্ন ছবির প্রমাণ দিলেন হৃতিক

বলিউড অভিনেতা হৃতিক রোশান এবং অভিনেত্রী কঙ্গনা রাণৌতের বিবাদ নিয়ে দিনে দিনে তৈরি হচ্ছে নিত্য নতুন বিতর্ক। তাদের মধ্যে ই-মেইল পাঠানোর বিষয়টি আগেই জানা গিয়েছিল। ই-মেইলে ব্যক্তিগত ছবি পাঠাতেন কঙ্গনা সে খবরও জানিয়েছিলেন হৃতিক। এবার শোনা যাচ্ছে, হৃতিককে ই-মেইলে যে ছবি পাঠাতেন সেগুলো ছিল কঙ্গনার নগ্ন ছবি।

সম্প্রতি কঙ্গনার পাঠানো কিছু ই-মেইল পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছেন হৃতিক। পুলিশ নাকি সেগুলো যাচাই-বাছাই করে বুঝতে পারছেন এ দুজনের সম্পর্ক ছিল পুরোই এক তরফা। হৃতিক নাকি কিছুই করতেন না বরং কঙ্গনা নাকি হৃতিককে একের পর এক রোমান্টিক মেইল পাঠাতেন।

এদিকে মক্কেলদের বাঁচাতে প্রাণপণে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তাদের আইনজীবীরা। হৃতিকের আইনজীবীর দাবি, প্রায় ছয় মাস যাবৎ হৃতিককে হাজারের বেশি ই-মেইল পাঠিয়েছেন কঙ্গনা। অন্যদিকে কঙ্গনার আইনজীবী বলছেন, কঙ্গনার বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ তুলেছেন হৃতিক।

এদিকে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যম তাদের প্রতিবেদনে হৃতিককে পাঠানো কঙ্গনার কিছু মেইল তুলে ধরেছে। কঙ্গনার পাঠানো এই মেইলগুলো কোর্টে দেখিয়েছেন হৃতিক। এমনটাই দাবি সংবাদমাধ্যমটির।

২০১৪ সালের ৪ অক্টোবর একটি মেইলে নিজের নগ্ন ছবি পাঠিয়ে হৃতিকের উদ্দেশ্যে কঙ্গনা নাকি লিখেছেন, ‘প্রথমবার যখন আমরা একসঙ্গে থাকব, তখন তোমার জন্য এ রকম কিছু অপেক্ষা করবে।’

অন্য একটি মেইলে লেখা, ‘সকালে যখন ঘুম থেকে উঠি প্রথমেই তোমার নাম দিয়ে গুগলে সার্চ করি। দিন শুরু করার আগে যদি তোমার একটি নতুন ছবি দেখতে পাই, নতুন কোনো সাক্ষাৎকার বা কোনো খবর পাই সেই আশায়। আশা করি, এই রুটিন খুব শিগগিরই শেষ হবে। তোমায় গুগলে না খুঁজে ফোন করে তোমার গলা শুনব। তোমার সঙ্গে কথা বলে দিন শুরু করব।’

সেই বছরই ৩ সেপ্টেম্বর হৃতিককে আরো একটি ই-মেইল পাঠান কঙ্গনা। সেখানে লিখেছেন, ‘মেইলগুলো পাঠানো খুবই কঠিন হয়ে যাচ্ছে। কারণ উত্তরে কিছুই পাচ্ছি না।’

এর আগে হৃতিক জানিয়েছিলেন কঙ্গনা ‘অ্যাসপারজার্স সিনড্রম’ রোগে আক্রান্ত। আর এই অভিনেত্রী নিজে নিজেই বিভিন্ন বিষয় কল্পনা করে নেন। শুধু তাই নয়, এ অভিনেতা দাবি করেছেন কঙ্গনা তাকে ১ হাজার ৪৩৯ টি ই-মেইল পাঠিয়েছেন এবং অনলাইনে তাকে গোপনে অনুসরণ করেছেন। হৃতিকের এ কথার সত্যতা মিলেছে কঙ্গনার একটি মেইলে।

অাগস্ট মাসে আর একটি মেইলে লেখা, ‘আমার অ্যাসপারজার্স সিনড্রম সমস্যা রয়েছে। এ ধরনের মানুষ কাল্পনিক সম্পর্ক আঁকরে ধরে বাঁচে। কিছুদিন ধরে মনে হচ্ছে আমি তোমার সঙ্গেই আছি।’

এদিকে হৃতিক যখন কঙ্গনার কাছে জানতে পারেন কেউ একজন তার নাম ব্যবহার করে এ অভিনেত্রীকে ই-মেইল পাঠাচ্ছেন। তারপর ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে তিনি সাইবার পুলিশের কাছে যান এবং এ বিষয়ে একটি মামলা করেন।

কঙ্গনার সঙ্গে এ অভিনেতার আইনি লড়াই শুরু হলে, গত ৫ মার্চ তিনি আবার পুলিশকে নতুনভাবে বিষয়টি খতিয়ে দেখার অনুরোধ করেন। এরপর সম্প্রতি কঙ্গনার পাঠানো ই-মেইলের কিছু কপি পুলিশকে হস্তান্তর করেন হৃতিক।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 9 - Rating 5.6 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)