JanaBD.ComLoginSign Up

যা করলে অফিসে সেরা হবেন!

লাইফ স্টাইল 21st May 2016 at 7:53am 160
যা করলে অফিসে সেরা হবেন!

এ বছরও নম্বর কম এসেছে। পরীক্ষার খাতায় নয়, কর্মক্ষেত্রে দক্ষতা ও কাজের মূল্যায়নে। ভাবছেন, সারা বছর তো মনোযোগ দিয়েই কাজ করলাম; ভুল হলো কোথায়! আপনার বস কর্মক্ষেত্রের নিয়ম অনুসরণ করে আপনার দোষ-গুণ বিচার করেই নম্বর দিয়েছেন। তাহলে?

সমস্যা আপনারই। সেগুলো খুঁজে বের করুন। ছোটখাটো কিছু বিষয় মেনে চললে অফিসে আপনার সুনাম বাড়বে বৈ কমবে না।


পোশাক
কর্মক্ষেত্রে পোশাক একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কর্মীর পোশাকের মাধ্যমে অনেক সময় তাঁর সম্পর্কে ইতিবাচক ও নেতিবাচক ধারণা তৈরি হয়। সাধারণত করপোরেট অফিসগুলোতে পোশাক নিয়ে কিছুটা বাধ্যবাধকতা দেখা যায়। কাজের ধরন অনুযায়ী কর্মীদের পোশাক নির্ধারণ করা হয়ে থাকে।

তবে কোনো কোনো কর্মক্ষেত্রে পোশাক নিয়ে ততটা মাথাব্যথা থাকে না। পোশাক যেমনই থাকুক, সেটা হওয়া উচিত পরিষ্কার। অনেক সময় এ বিষয়টি তাড়াহুড়োয় খেয়াল করা হয় না।

কর্মক্ষেত্রে সহকর্মী যখন পোশাকের খুঁতটা দেখিয়ে দেন, লজ্জাই লাগে তখন। কর্মক্ষেত্রে পরিপাটি হয়ে যাওয়া কাজে মনোনিবেশেও সহায়তা করে।


ইতিবাচক মনোভাব
কর্মক্ষেত্রে ইতিবাচক মনোভাব আবশ্যক। ছোট ছোট সমস্যা যেন পেশাগত কাজের ক্ষেত্রে বড় বাধা হয়ে না দাঁড়ায়, সে জন্য আপনাকেই ইতিবাচক ভূমিকা পালন করতে হবে। হাসিমুখে সমস্যা সমাধান করে দেখুন, প্রশংসিত হবেন।


দায়িত্ব নিন
কর্মক্ষেত্রে নতুন কোনো কাজ দেওয়া হলে ঘাবড়ে গেলেও সেটা বুঝতে দেবেন না। বরং আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে ‘হ্যাঁ’ বলুন। কাজ ছোট হোক বা বড়, প্রথমেই যদি ‘না’ বলে দেন, তাহলে সেটাকে নেতিবাচক বৈশিষ্ট্য হিসেবেই গণ্য হবে।


কাজ শিখুন
কর্মক্ষেত্রে আপনার কাজগুলো দক্ষতার সঙ্গে করার চেষ্টা করুন। যতক্ষণ কাজটি সঠিকভাবে না হচ্ছে, চেষ্টা চালিয়ে যান। নিত্যনতুন পদ্ধতি বের হচ্ছে।

সেগুলো যদি আপনার কাজের জন্য সুফল বয়ে আনে, জেনে নেওয়া খুবই জরুরি। কাজের দক্ষতা যত বাড়বে, উন্নয়নের দিকে ততটাই এগিয়ে যাবেন।


সময়জ্ঞান
কর্মক্ষেত্রে সময়ের কদর করুন। সঠিক সময়ে অফিসে ঢুকুন। চেষ্টা করুন সময়ের আগেই কাজ শেষ করার। যেকোনো সময় মিটিং ও আনুষ্ঠানিক অনুষ্ঠানে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকুন।


দোষ স্বীকার
নিজের দোষে কাজে কোনো ভুল হয়ে থাকলে সেটা স্বীকার করে নেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। সহকর্মীর ওপর দোষ না দেওয়াই ভালো। সাহসের সঙ্গে ভুল স্বীকার করলে, সেটাতে বরং দোষ কম ধরা হবে। কিন্তু পরবর্তী সময়ে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা বিষয়টি জানতে পারলে দোষ থেকে রেহাই পাবেন না।


সম্মান প্রদর্শন করুন
কর্মক্ষেত্রে আপনার থেকে ছোট ও বড় পদের অধিকারী, সবাইকে সম্মান দিন। কারও পেছনে বদনাম না করে, সাহস করে সামনাসামনি বলুন। সহকর্মীদের কাজের প্রতি সম্মান দেখান। অন্যের কাজকে কখনো ছোট করে না দেখাই ভালো।


হাসিখুশি থাকুন
ব্যক্তিগত ঝামেলার কারণগুলো অফিস পর্যন্ত না আনাই ভালো। অফিসে হাসিখুশি থাকার চেষ্টা করুন। আপনার ব্যক্তিগত জীবনে যদি কোনো ঝামেলা থাকে, সেটা কর্মক্ষেত্রে প্রকাশ করবেন না।

কাজে সন্তুষ্ট না হলে বসরাও মাঝেমধ্যে নেতিবাচক কিছু বলতে পারেন। এ নিয়ে অফিসে মন খারাপ করে থাকবেন না।

Googleplus Pint
Noyon Khan
Manager
Like - Dislike Votes 5 - Rating 6 of 10
Relatedআরও দেখুনঅন্যান্য ক্যাটাগরি

পাঠকের মন্তব্য (0)